জাতীয়

বাবার সঙ্গে প্রে’মের স’ন্দেহে শাশুড়িকে খু’ন করল পুত্রবধূ

বাবার সাথে শাশুড়ির প্রে’মের সর্ম্পক স’ন্দেহে পুত্রবধূ হাতে খু’ন হলো শাশুড়ি। এ ঘটনায় নি’হ’তের পুত্রবধূ সুমাইয়া আক্তার লাবণ্য (২১) কে আ’ট’ক করেছে পু’লিশ। ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজে’লার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের কাঁঠালিয়া।

রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের কাঁঠালিয়া গ্ৰাম থেকে এক না’রীর র’ক্তাক্ত ম’রদেহ উ’দ্ধা’র করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে বাকেরগঞ্জ থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) আলাউদ্দিন মিলন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। জানা যায়, নি’হ’ত নাজনীন বেগম (৫০) ওই এলাকার মৃ’ত হানিফ হাওলাদারের স্ত্রী’। তার পূত্রবধূ কাঠালিয়া গ্ৰামের মৃ’ত হানিফ হাওলাদারের বড় ছে’লে উজ্জ্বল হাওলাদারের স্ত্রী’ সুমাইয়া আক্তার লাবণ্য (২১)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, লাবণ্য আক্তার শাশুড়ির সঙ্গে গ্ৰামের বাড়িতে বসবাস করতেন। উজ্জ্বল ও তার ছোট ভাই রাজু হাওলাদার চাকরির সুবাদে ঢাকায় থাকেন। ঈদ শেষে দুই ভাই ১০ মে ঢাকায় ফিরে যায়। নি’হ’তের স্বজন (ভাসুর) কালাম হাওলাদার বলেন, বুধবার (১১ মে) রাতে নি’হ’তের ছে’লে উজ্জ্বল মোবাইলে কল দিয়ে জানায় তার মা ফোন রিসিভ করছেন না। তাই তাদের ঘরে গিয়ে মায়ের খোঁজ নিতে বলেন।

তিনি আরও বলেন, আমি ঘরের সামনের দরজা বন্ধ দেখে পেছনের দিকে যাই। সেখানে ঘরের পেছনের দরজা খোলা দেখতে পেয়ে ভেতরে প্রবেশ করি এবং চৌকির পাশে মশারিতে পেছানো অবস্থায় নাজনীন বেগমের র’ক্তাক্ত ম’রদেহ দেখতে পাই। বিষয়টি তাৎক্ষণিক পু’লিশকে অবহিত করি।

বাকেরগঞ্জ থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) আলাউদ্দিন মিলন বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি হ’ত্যাকা’ণ্ড। আম’রা ঘটনাস্থলে গিয়ে মশারির মধ্যে র’ক্তাক্ত অবস্থায় ম’রদেহ দেখতে পাই। এছাড়া হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনার পর অ’ভিযু’ক্তর জামা-কাপড় ও র’ক্তে ভিজে যাওয়ায় সেগুলো চালের ড্রামের নিচে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। যা উ’দ্ধা’র করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয়দের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার (১১ মে) রাত পৌনে ১২টায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লাবণ্যকে আ’ট’ক করা হয়েছে।

জিজ্ঞাসাবাদে লাবন্য পু’লিশকে জানিয়েছেন, তার বাবা মো. খলিলের সঙ্গে শাশুড়ির স’ম্প’র্ক ছিল। বেশ কয়েকবার বিষয়টি তার চোখে ধ’রা পড়েছে। এটা তিনি মেনে নিতে পারছিলেন না। এ কারণে তিনি শাশুড়িকে হ’ত্যা করেছেন। ঘটনাস্থল থেকে হ’ত্যাকা’ণ্ডে ব্যবহৃত ছু’রি উ’দ্ধা’র করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ম’রদেহ উ’দ্ধা’র করে ময়নাত’দ’ন্তের জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে মা’ম’লা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Back to top button