আন্তর্জাতিক

জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থাকে যে কারণে ‘দ্বিমুখী’ বলল চীন

জাতিসংঘ মানবাধিকার সংস্থাকে দ্বিমুখী সংগঠন হিসেবে অ’ভিহিত করেছেন চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজান।বৃহস্পতিবার মানবাধিকার সংস্থা রা*শি*য়ার বি’রু’দ্ধে একটি রেজ্যুলেশন পাস করে। যার মাধ্যমে রা*শি*য়ার সে’নাদের বি’রু’দ্ধে ই*উ*ক্রে*নে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ত’দ’ন্ত করবে সংগঠনটি।

আর রা*শি*য়ার বি’রু’দ্ধে এই রেজ্যুলশন পাস হওয়ার কারণে সংগঠনটিকে দ্বিমুখী বলেছেন চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র।

শুক্রবার নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি বলেছেন, মানবাধিকার সংস্থা যখন কিছু দেশের বি’রু’দ্ধে নিয়মিত অধিবেশন আয়োজন করছে, সেখানে অন্য কিছু দেশের বি’রু’দ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারেনি।

তিনি কিছু দেশে বর্ণ বৈষম্য, অ’স্ত্র স’হিং’সতা, তথ্য অ’প’রা’ধ এবং অ’ভিবাসী প্রত্যাশীদের ওপর চালানো অ’ত্যাচার নিয়ে মানবাধিকার সংস্থার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

এদিকে রা*শি*য়ার বি’রু’দ্ধে মানবাধিকার সংস্থায় যে রেজ্যুলেশন পাস হয়েছে সেটির বি’রু’দ্ধে ভোট দিয়েছিল চীন।চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানিয়েছেন কেন চীন এর বি’রু’দ্ধে ভোট দিয়েছে।

এ ব্যাপারে মুখপাত্র ঝাও লিজান বলেন, মানবাধিকার সংস্থায় দ্বিমুখী রাজনীতিকরণ এবং টার্গেট করে নির্দিষ্ট দেশের বি’রু’দ্ধে কর্মকা’ন্ড বেড়ে গেছে। আর এ কারণে চীন ই*উ*ক্রে*নের ইস্যু নিয়ে তোলা ই*উ*ক্রে*নের রেজ্যুলেশনের বি’রু’দ্ধে ভোট দিয়েছে।

Back to top button