আন্তর্জাতিক

আমিরাতের প্রেসিডেন্টের মৃ’ত্যুতে শনিবার বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক

সংযু’ক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট এবং আবুধাবির শাসক শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের মৃ’ত্যুতে বাংলাদেশেও রাষ্ট্রীয় শোক পালন করা হবে। শনিবার (১৪ মে) এ শোক পালন করা হবে।

শুক্রবার (১৩ মে) মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ই’স’লা’ম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সরকার এই ম’র্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু সংযু’ক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের মৃ’ত্যুতে ১৪ মে শনিবার বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয়ভাবে এক দিনের শোক পালন করা হবে।

এ উপলক্ষে শনিবার বাংলাদেশের সকল সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সকল সরকারি ও বেসরকারি ভবন এবং বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে।

সংযু’ক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের রুহের মাগফেরাতের জন্য আগামী ২৪ মে শনিবার বাংলাদেশের সকল ম’স’জিদে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হবে। অন্যান্য ধ’র্মীয় প্রতিষ্ঠানে তার আত্মা’র শান্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হবে।

শুক্রবার আবুধাবির শাসক শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের মৃ’ত্যুর সংবাদ প্রকাশ করে প্রেসিডেন্টের কার্যালয়। পরে আমিরাতের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ডব্লিউএএম এ তথ্য নিশ্চিত করে। মৃ’ত্যুর সময় প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের বয়স ছিল ৭৩ বছর।

আমিরাতের প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, প্রেসিডেন্টের মৃ’ত্যুতে শুক্রবার থেকে আগামী ৪০ দিনের জন্য রাষ্ট্রীয় শোক পালন করা হবে। পতাকা অর্ধনমিত রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

টুইটারে দেওয়া ঘোষণায় প্রেসিডেন্টের কার্যালয় আরও জানায়, ফেডারেল ও স্থানীয় পর্যায়ে সংস্থাগুলো আগামী তিনদিন বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া সরকারি সংস্থা ও বেসরকারি সেক্টরে মন্ত্রণালয়গুলোও আগামী তিনদিন শোক পালনে বন্ধ রাখা হবে।

শেখ খলিফা তার পিতা প্রয়াত শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের উত্তরসূরি নির্বাচিত হয়েছিলেন। ১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। সংযু’ক্ত আরব আমিরাতের দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি এবং আবুধাবির ১৬তম শাসক ছিলেন জায়েদ আল নাহিয়ান।

Back to top button