জাতীয়

টিফিনের জন্য মাংস না পেয়ে শি’শুর আত্মহ’ত্যা!

খুলনার পাইকগাছায় মায়ের সঙ্গে অ’ভিমান করে ম’রিয়াম নামে (১০) বছরের এক শি’শু আত্মহ’ত্যা করেছে । শনিবার (১৪মে) সকালে উপজে’লার রাড়লীর ষষ্টিতলা এলাকায় নিজ ঘরের আড়ায় গামছা ঝুলিয়ে আত্মহ’ত্যা করেছে সে।

ম’রিয়াম ওই এলাকার জুলফিকার গাজীর মে’য়ে এবং স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীতে পড়তো।পু’লিশ জানিয়েছে ধারণা করা হচ্ছে, সে মায়ের ওপর অ’ভিমান করে আত্মহ’ত্যা করেছে।

স্বজনরা জানান, ম’রিয়ম স্কুলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে দেখে তার মা বাড়ির বাইরে যায়। এর আগে সে গরুর মাংস খেতে চাওয়ায় বাবা বাজারে গিয়েছিল। কিছুক্ষণ পর মা বাড়ি ফিরে দেখে ম’রিয়ম ঘরের আড়ায় ঝুলন্ত অবস্থায় দাপাদাপি করছে।

তাৎক্ষণিক ম’রিয়মকে উ’দ্ধা’র করে প্রথমে স্থানীয় গ্রাম্য ডাক্তার ও পরে অবস্থা খা’রা’প দেখে পাইকগাছা উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন। এসময় কর্তব্যরত ডাক্তার আরও জানান, হাসপাতা’লে আনার আগেই তার মৃ’ত্যু হয়েছে।

এব্যাপারে পাইকগাছা থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) জিয়াউর রহমান বাংলানিউজকে জানান, সকালে ম’রিয়ম মায়ের কাছে স্কুলের টিফিনে গরুর মাংসের আবদার করেছিল। তবে মা পরের দিন মাংস দেওয়া হবে জানিয়ে তাকে এদিন ডিম দিয়ে টিফিন নিয়ে স্কুলে যেতে বলেন। এরপর সে স্কুলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে দেখে মা ঘরের সামনের রাস্তায় পরিচিত একজনের সঙ্গে কথা বলছিল। আর বাবা দরিদ্র হওয়ায় মেয়ের আবদার পূরণে বাজারে পোল্ট্রি মুরগি কিনতে যান। সে সময় খালি ঘর পেয়ে আড়ার সঙ্গে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহ’ত্যা করে ম’রিয়ম।

তিনি আরও জানান, ম’রদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন হলেও পরিবারের দাবির প্রেক্ষিতে ময়না ত’দ’ন্তের জন্য না পাঠিয়ে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। সর্বশেষ এ ব্যাপারে থা’নায় একটি অ’পমৃ’ত্যুর মা’ম’লা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Back to top button