আন্তর্জাতিক

সাংবাদিক শিরিন হ’ত্যাকা’ণ্ডের প্রতিবাদে লন্ডনে বিশাল বি’ক্ষো’ভ

পশ্চিমতীরের জেনিনে ফি’লি’স্তিনি শরণার্থী শি’বিরে দখলদার ই’স’রাইলি বাহিনীর একটি কথিত অ’ভিযানে সংবাদ সংগ্রহ করতে যাওয়া আলজাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহকে গু’লি করে হ’ত্যার প্রতিবাদে বিশাল বি’ক্ষো’ভ সমাবেশ হয়েছে যু’ক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রধান কার্যালয়ের সামনে শনিবার ১৫ হাজার প্রতিবাদকারী ওই বি’ক্ষো’ভে অংশ নেন। খবর আরব নিউজের।২০০০ থেকে এ পর্যন্ত ফি’লি’স্তিনে ৫৫ সাংবাদিককে গু’লি করে ই’স’রাইলি বাহিনী। ইহুদিবাদী দেশটির এ বর্বরতার প্রতিবাদে ৫৫টি প্রেস লেখা প্ল্যাকার্ড নিয়ে বি’ক্ষো’ভ সমাবেশ করেন তারা।

বি’ক্ষো’ভকারীরা দ্রুত নিরপেক্ষ ত’দ’ন্তের মাধ্যমে বর্বর ই’স’রাইলি বাহিনীর দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তি দাবি করেন।সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহকে শুক্রবার জেরুজালেমের একটি খ্রিস্টান কবরস্থানে সমাহিত করা হয়েছে।ফি’লি’স্তিন বংশোদ্ভূত এ মা’র্কিন নাগরিকের ম’রদেহ চার্চে নেওয়ার পথে দখলদার ই’স’রাইলি পু’লিশ শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দেওয়া মানুষের ওপর লা’ঠিচার্জ, স্টান গ্রেনেড ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে।

ই’স’রাইলের এক মন্ত্রী দেশটির পু’লিশের এহেন আচরণের তীব্র ক্ষোভ জানিয়েছেন। দেশটির আঞ্চলিক সহযোগিতাবিষয়ক মন্ত্রী এসাবি ফ্রেজ শনিবার এক টুইটবার্তায় ই’স’রাইলি পু’লিশের কঠোর সমালোচনা করেন। খবর আনাদোলুর।

ফ্রেজ বলেন, শোকাহত মানুষের ওপর হা’ম’লা করে পু’লিশ অ’ত্যন্ত গর্হিত কাজ করেছে। এটা নিন্দনীয় এ লজ্জাকর ঘটনা।ই’স’রাইলি পার্লামেন্ট নেসেটের এ আবর সদস্য আরও বলেন, শুক্রবার অকারণে এ উসকানিমূলক আচরণ করেছে পু’লিশ। শোকাহত মানুষের প্রতি সামান্য শ্রদ্ধাবোধ দেখাননি তারা।

ই’স’রাইলি পু’লিশের এ বর্বর আচরণে জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং যু’ক্তরাষ্ট্রও তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।উল্লেখ্য, গত বুধবার পশ্চিমতীরের জেনিনে ফি’লি’স্তিনি শরণার্থী শি’বিরে দখলদার ই’স’রাইলি বাহিনীর একটি কথিত অ’ভিযানে সংবাদ সংগ্রহ করতে যান শিরিন আবু আকলেহ ও অন্য সাংবাদিকরা।

এ সময় তার মুখে এসে আ’ঘাত করে ই’স’রাইলি সে’নাদের একটি বুলেট। সেই একটি বুলেটের আ’ঘাতেই মৃ’ত্যু হয় তার।শিরিন ১৯৯৭ সাল থেকে আলজাজিরার হয়ে কাজ করেছেন। তিনি তার রিপোর্টে তুলে আনার চেষ্টা করেছেন ফি’লি’স্তিনের ওপর ই’স’রাইলের নিগ্রহের বিষয়টি।

দাবি করা হচ্ছে, আলজাজিরার ফি’লি’স্তিনি এ সাংবাদিককে টার্গেট করে গু’লি করে ই’স’রাইলি স্নাইপার।শিরিনের মুখে যখন গু’লি লাগে তখন তিনি হেলমেট ও প্রেস লেখাসংবলিত জ্যাকেট পড়েছিলেন।

Back to top button