জাতীয়

একমাত্র শেখ হাসিনাই বাংলাদেশের জন্য অ’পরিহার্য

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেছেন, বাংলাদেশের জন্য একমাত্র শেখ হাসিনাই অ’পরিহার্য, তার কোনো বিকল্প নেই- এটা তিনি প্রমাণ করেছেন। শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সোমবার (১৬ মে) ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে, কেন্দ্রীয় যুবলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হ’ত্যাকা’ণ্ডের পর প্রায় ছয় বছর নির্বাসিত জীবন কাটিয়ে ১৯৮১ সালের ১৭ মে দেশে ফেরেন তার জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনা। দিনটিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠন শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস হিসেবে পালন করে।

অনুষ্ঠানে দৃষ্টি, বাক, শ্রবণ ও শা’রীরিক প্রতিব’ন্ধীদের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি, হুইল চেয়ার ও সাদা ছড়ি বিতরণ করা হয় ৷পরশ বলেন, ২০০৭ সালের ১/১১ সময়ে এক সে’না কর্মক’র্তা আমাকে প্রশ্ন করেছিলেন, ‘কেন শেখ হাসিনা অ’পরিহার্য আওয়ামী লীগ এবং বাংলাদেশের রাজনীতিতে?’ আজকে সেই প্রশ্নের উত্তর শেখের বেটি দিয়ে দিয়েছেন। নেত্রী তার কর্মের মাধ্যমে সেই প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন। প্রমাণ করেছেন যে, একমাত্র তিনিই অ’পরিহার্য বাংলাদেশের জন্য। শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই।

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, বিএনপি-জামাত সরকার এদেশকে দু’র্নী’তিতে চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছিল ৫ বার, আর শেখ হাসিনার সরকার দু’র্নী’তি দমন কমিশনকে (দুদক) স্বাধীন করেছেন, শক্তিশালী করেছেন। আজকে একটা মেসেজ ক্লিয়ার দু’র্নী’তিবাজ যেই হোক, কারোর রক্ষা নেই। আজকে দলীয় নেতা-কর্মী বলেন, আর প্রশাসনিক আমলা বলেন দু’র্নী’তি করলে শা’স্তি পেতেই হবে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামাত সরকার এদেশে জ’ঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়েছিল, আর শেখ হাসিনা সরকার জ’ঙ্গিবাদ এদেশ থেকে নির্মূল করে দিয়েছে। বিচার বিভাগকে স্বাধীন করে দিয়েছে, তাই এমপি বলেন, আর প্রশাসনিক কর্মক’র্তা বলেন, কাউকেই ছাড় দেওয়া হচ্ছে না, সাজা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অ’তিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সম্মানিত অ’তিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হু’মায়ুন কবির, অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. মামুনুর রশীদ, ডা. খালেদ শওকত আলী, মো. রফিকুল ই’স’লা’ম, মো. হাবিবুর রহমান পবন, মো. এনামুল হক খান, ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, মো. মো’য়াজ্জেম হোসেন, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, তাজউদ্দিন আহমেদ, মো. জসিম মাতুব্বর, মো. আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বা’স মুতিউর রহমান বাদশা, সুব্রত পাল, মুহা. বদিউল আলম, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, মো. রফিকুল আলম জোয়ার্দার সৈকত, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মো. মাজহারুল ই’স’লা’ম, ডা. হেলাল উদ্দিন, মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, মো. জহির উদ্দিন খসরু, মো. সোহেল পারভেজ, আবু মুনির মো. শহিদুল হক চৌধুরী রাসেল, মশিউর রহমান চপল, অ্যাড. ড. শামীম আল সাইফুল সোহাগ, ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের ভা’রপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, দক্ষিণের ভা’রপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানা, ভা’রপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজা, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, দপ্তর সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ প্রমুখ

Back to top button