জাতীয়

পিকে হালদারকে ফেরত চেয়েছে বাংলাদেশ, যা বললেন ভা’রতের হাইকমিশনার

ভা’রতের কাছে বাংলাদেশের আর্থিক খাতের আ’লো’চি’ত জালিয়াত, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমা’র হালদার ওরফে পিকে হালদারকে ফেরত চাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মঙ্গলবার বাংলাদেশে নিযু’ক্ত ভা’রতের হাইকমিশনার বিক্রম কুমা’র দোরাইস্বামীর সঙ্গে বৈঠকে এ অনুরোধ করেন সচিব।বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব গণমাধ্যমকে বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিষয়টি পরিষ্কার হবে।

বৈঠক শেষে পিকে হালদারের বিষয়ে পররাষ্ট্রসচিবের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে কি না- জানতে চাইলে ভা’রতীয় হাইকমিশনার বলেন, তার বিষয়ে কথা হয়েছে। এটি দুই দেশের নিয়মিত সহযোগিতার একটি অংশ।‌ দুই দেশের অ’প’রা’ধীদের মোকাবিলার জন্য পারস্পরিক আইনি‌ সহায়তাসহ নানা ধরনের কাঠামো রয়েছে।

‘বাংলাদেশ সরকার ভা’রতের সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে তথ্য দিয়েছে। ভা’রতীয় সংস্থা ওই তথ্য যাচাইয়ের পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। এ ক্ষেত্রে আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হবে। বাংলাদেশ ও ভা’রতের সংঘবদ্ধ অ’প’রা’ধ ও অ’প’রা’ধীদের দমনের জন্য সহযোগিতা রয়েছে।’

পিকে হালদারকে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে বাংলাদেশ অনুরোধ করেছে কি না- জানতে চাইলে ভা’রতের হাইকমিশনার বলেন, গত সপ্তাহে ছুটির দিনে তাকে গ্রে’প্তা’র করা হয়েছে। আমাদের কাছে যা তথ্য আছে, তার ভিত্তিতে একটা সময় বাংলাদেশকে জানানো হবে।তাকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তরে সময় লাগতে পারে। কারণ এসব বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়।

‘এটি একটি আইনি বিষয়। আমাদের কাছে যা তথ্য আছে, তার ভিত্তিতে বাংলাদেশকে জানানো হবে। বুঝতে হবে, এটি কিন্তু বড়দিনের কার্ড বিনিময় নয়। আমি মনে করি, এ ধরনের বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়।‌ সেটি আস্তে আস্তে হতে দিন। এ নিয়ে আম’রা বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করছি।’

এ ছাড়া বাংলাদেশ ও ভা’রতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের যৌথ পরাম’র্শক কমিশনের (জেসিসি) বৈঠকের প্রস্তুতি নিয়ে বিক্রম দোরাইস্বামী পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে আলোচনা করেন। ৩০ মে দিল্লিতে জেসিসি বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

Back to top button