আন্তর্জাতিক

ভাই’রাল হতে বন-জঙ্গলে আ’গু’ন লাগাচ্ছে টিকট’কাররা!

জনপ্রিয় টিকট’কে একটি ভ’য়ংকর ট্রেন্ড চালু হয়েছে। মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ভিডিও বানাতে বন-জঙ্গলে আ’গু’ন লাগাচ্ছে টিকট’কাররা। বিপজ্জনক এই ধারা আ’ট’কাতে পা’কিস্তানে আইন প্রণয়নের দাবি জানিয়েছেন দেশটির বন্যপ্রা’ণী বিভাগের কর্মক’র্তারা। খবর- জিও নিউজের।

এদিকে কয়েকদিন আগে সামান্য এক টিকট’ক ভিডিওর জন্য দুই যুবক মা’রগাল্লা পাহাড়ের জঙ্গলে আ’গু’ন দেওয়ার একটি ভিডিও ব্যাপক সমালোচনা ও ক্ষোভের জন্ম দেয়। ভিডিওতে এক টিকট’কারকে গ্যাসলাইট দিয়ে জঙ্গলে আ’গু’ন দিতে দেখা যায়।

তাছাড়া আরেকটি ভিডিও ভাই’রাল হয়েছে, যেখানে এক না’রী টিকট’কার তার ভিডিওতে ‘ড্রামাটিক ইফেক্টস’ যোগ করতে জঙ্গলে আ’গু’ন ধরিয়ে দিয়েছেন। টিকট’ক ভিডিও বানাতে জঙ্গলের কয়েক ডজন গাছ পুড়িয়ে ছাই করে দিয়েছেন তিনি। এর আগে অ্যাবোটাবাদের একটি জঙ্গলে আ’গু’ন দেওয়ায় আরেক টিকট’কারকে হেফাজতে নিয়েছিলেন পা’কিস্তানের বন্যপ্রা’ণী বিভাগের কর্মক’র্তারা।

এদিকে টুইটারে সেই না’রী টিকট’কারের ভিডিও শেয়ার করে ই’স’লা’মাবাদের বন্যপ্রা’ণী ব্যবস্থাপনা বোর্ডের চেয়ারপারসন রিনা এস খান সাট্টি বলেছেন, টিকট’কে এটি বির’ক্তিকর ও সর্বনাশা প্রবণতা! এই গরম ও শুষ্ক মৌসুমে ফলোয়ার পেতে ম’রিয়া তরুণ-তরুণীরা জঙ্গলে আ’গু’ন ধরিয়ে দিচ্ছে!

অস্ট্রেলিয়ায় জঙ্গলে আ’গু’ন দিলে যা’ব’জ্জীবন কারাদ’ণ্ডের বিধানের কথা উল্লেখ করে তিনি দাবি জানিয়েছেন, পা’কিস্তানেও এ ধরনের আইন করা হোক। রিনার মতে, এসব মানসিক বিকারগ্রস্ত তরুণদের অবিলম্বে কারাগারে পাঠাতে হবে! এ কারণে এ ধরনের ঘটনার কোনো তথ্য থাকলে তা দ্রুত পা’কিস্তান বন্যপ্রা’ণী বোর্ডকে জানানোর অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে টিকট’কের ভাষ্যমতে, বিপজ্জনক বা বেআইনি কাজগুলো চিহ্নিত করে আম’রা সেগুলো হয় অ’পসারণ, সীমিতকরণ অথবা লেবেল যোগ করে দেই। আম’রা ব্যবহারকারীর সুরক্ষার প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতিতে সর্বদা সজাগ এবং প্রত্যেককে তাদের আচরণে সতর্কতা ও দায়িত্ববোধ বজায় রাখতে উত্সাহিত করি।

 

Back to top button