জাতীয়

সিলেটে বিপৎসীমা’র উপরে পানি, ২ জনের মৃ’ত্যু

সিলেটে সার্বিক ব’ন্যা পরিস্থিতি অ’পরিবর্তিত রয়েছে। নদনদীর পানি এখনও বিপৎসীমা’র উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানিব’ন্দি রয়েছেন জে’লার অন্তত ১২ লাখ মানুষ। এদিকে কানাইঘাট উপজে’লায় ব’ন্যার পানিতে ডুবে নি’খোঁ’জ হওয়া দুই ব্যক্তির লা’শ উ’দ্ধা’র করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকাল থেকে সিলেটে বিভিন্ন উপজে’লায় থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে।

নি’হ’তরা হলেন- উপজে’লার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নের নক্তিপাড়া গ্রামের ফয়জুর রহমানের পুত্র ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমানের (৫০) ও দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের উত্তর বাণীগ্রামের (ছত্রপুর) ছইফ উল্লাহর পুত্র আব্দুল্লাহ (৩৫)। হাবিব গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে কানাইঘাট উপজে’লার মমতাজগঞ্জ বাজারের পাশে সুরমা নদীতে নৌকা ডুবে নি’খোঁ’জ হন তিনি। আজ সুরমা নদীর খুলুরমাটি নামক স্থানে তার লা’শ পাওয়া যায়। আর আব্দুল্লাহ গতকাল বুধবার উপজে’লার ছত্রপুর গ্রামের একটি বিলে মাছ ধরতে গিয়ে নি’খোঁ’জ হন। আজ স্থানীয় পেকু বিলে তার লা’শ পাওয়া যায়।

জে’লার ১৩ উপজে’লার অন্তত ৭৫টি ইউনিয়ন ব’ন্যায় প্লাবিত হয়েছে। নগরের পানিব’ন্দি মানুষ খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও শৌচাগার সংকটে বাসা ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিচ্ছেন। জকিগঞ্জ, কানাইঘাট, গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, কোম্পানিগঞ্জ, গো’লাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার উপজে’লায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ব’ন্যা কবলিত এলাকাসমূহে দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। ব’ন্যার্তদের জন্য সরকারি ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। জে’লা প্রশাসন জানিয়েছে, জে’লায় এখন পর্যন্ত ১৪৯ মেট্রিক টন চাল, নগদ ৫ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ও ২০ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। ২৭৪টি আশ্রয় ও ২২০টি গবাদি পশুর জন্য পৃথক আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ঔষধ, খাবার স্যালাইন ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট সরবরাহ করা হচ্ছে। পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোগে ব’ন্যাদুর্গত মানুষের জন্য সহযোগিতা অব্যাহত রয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সিলেট জানিয়েছে, উজানের ঢল কিছুটা কমেছে। বৃহস্পতিবার সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে ১২ সেন্টিমিটার পানি কমেছে। এখনও বিপৎসীমা’র ১০৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। সিলেট পয়েন্টে এখনও পানি কমেনি। বিপৎসীমা’র ৪৭ সেন্টিমিটার উপরে রয়েছে। কুশিয়ারা নদীর অমলশিদ পয়েন্টে বিপৎসীমা’র ১৭৫ সেন্টিমিটার ও শেওলা পয়েন্টে ৫৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর সিলেটের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহম’দ চৌধুরী জানিয়েছেন, আজ সিলেটে বজ্রসহ প্রবল বৃষ্টি হয়েছে। আগামী ২১ ও ২২ মে পর্যন্ত সিলেট অঞ্চলে বৃষ্টি হবে। ২৩, ২৪, ২৫ তারিখ বৃষ্টি কমতে পারে। সিলেট ও ভা’রতের মেঘালয়-আসাম-ত্রিপুরা রাজ্যে বৃষ্টি কমলে সিলেটে ব’ন্যা পরিস্থিতির দ্রুত উন্নতি হতে পারে।

Back to top button