জাতীয়

টিকট’ক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে কি’শোরের মৃ’ত্যু!

নীলফামা’রীর সৈয়দপুরে টিকট’ক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে মোস্তাকিন (১৬) নামে এক কি’শোরের মৃ’ত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মে) সকাল সাড়ে ৯টায় উপজে’লার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের খড়খড়িয়া নদীর দীঘলডাঙ্গী ব্রিজে এ ঘটনা ঘটে।

নি’হ’তের চাচা মো. মোখলেছুর রহমান জানান, উপজে’লার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের খোর্দ্দ বোতলাগাড়ী গ্রামের মন্টু রহমান ও আহেলা খাতুন দম্পতির ছে’লে মোস্তাকিন। সে সৈয়দপুর শহরের অদূরে ঢেলাপীরে একটি সাবান কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো। ঘটনার দিন কারখানা ছুটি থাকায় সে তার কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে বাড়ির পাশের খড়খড়িয়া নদীর দীঘলডাঙ্গী ব্রিজে যায়। এ সময় টিকট’ক তৈরির জন্য নদীর ব্রিজের ওপর থেকে পানিতে লাফ দেয় মোস্তাকিন। সে ‍দৃশ্য বন্ধুরা তার মোবাইল ফোন থেকে ভিডিও করছিল। লাফ দেওয়ার পরে পানিতে ডুবে নি’খোঁ’জ সে।

পরে খবর পেয়ে সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ছুটে এসে তাকে উ’দ্ধা’রে নদীতে নামেন। এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় প্রায় দেড় ঘণ্টা পর ঘটনাস্থল থেকে ৫০ গজ দূর থেকে মোস্তাকিনকে অচেতন অবস্থায় উ’দ্ধা’র করেন। পরে তাকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতা’লে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে সৈয়দপুর থা’নার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. তারেক রহমান হাসপাতা’লে গিয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন। পরে আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাত’দ’ন্ত ছাড়াই ম’রদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

সৈয়দপুর থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) মো. আবুল হাসানাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থা’নায় একটি অ’পমৃ’ত্যু (ইউডি) মা’ম’লা হয়েছে। সামাজিক অবক্ষয় রোধে বাংলাদেশে টিকট’ক, লাইকির মতো অ’পসংস্কৃতি বন্ধে সবার এগিয়ে আসা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, এই প্রজন্মের জন্য সুন্দর, সাবলীল বিনোদনের ব্যবস্থা করে খেলাধুলাসহ বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতামূলক কার্যকলাপে অংশগ্রহণের ব্যবস্থা করতে হবে আমাদের। সামাজিকভাবে অ’ভিভাবক ও সমাজের সবাই এগিয়ে এলেই আগামী প্রজন্মকে সঠিক পথে পরিচালিত করা সম্ভব হবে।

Back to top button