জাতীয়

হাজি সেলিম আত্মসম’র্পণ করছেন আজ

জ্ঞাতআয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের দায়ে ১০ বছর দ’ণ্ডিত আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হাজি মোহাম্ম’দ সেলিম আজ আ’দা’লতে আত্ম’র্পণ করবেন। পাশাপাশি হা’ই’কো’র্টের রায়ের বি’রু’দ্ধে আপিল বিভাগে লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) করবেন তার আইনজীবীরা।আইনে বিকল্প পথ না থাকায় কারাগারে যেতেই হচ্ছে হাজি সেলিমকে।

হাজি সেলিমের ব্যক্তিগত কর্মক’র্তা মহিউদ্দিন মাহমুদ বেলাল যুগান্তরকে জানান, রোববার দুপুর ২টা থেকে বেলা ৩টার মধ্যে স্পেশাল ট্রাইব্যুনালের ৭নং কোর্টে তিনি আত্মসম’র্পণ করতে পারেন।

হা’ই’কো’র্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর সাজা’প্রাপ্ত হাজি সেলিম ঢাকা-৭ আসনের সংসদ-সদস্য পদে থাকার বৈধতা নিয়ে নানা মহলে গুঞ্জন শুরু হয়। প্রশ্ন উঠে, আ’দা’লতের পূর্ণাঙ্গ রায়ের পরে তার সংসদ সদস্য পদ থাকবে কিনা বা তাকে এ পদে রাখা নৈতিক বিবেচনায় কতটা সম’র্থনযোগ্য হবে।

সংবিধানের ৬৬(২)(ঘ) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, একজন সংসদ সদস্য নৈতিকস্খলনজনিত ফৌজদারি অ’প’রা’ধে কমপক্ষে দুই বছরের সাজা’প্রাপ্ত হলে তার সংসদ সদস্য পদ বাতিল হবে। আর ফৌজদারি কার্যবিধির ৪২৬ ধারা অনুযায়ী তার সাজার রায় স্থগিত না হওয়া পর্যন্ত তিনি সংসদ সদস্য হিসাবে বিবেচিত হবেন না।

হাজি সেলিমের আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা যুগান্তরকে বলেন, হা’ই’কো’র্ট তাকে আত্মসম’র্পণ করতে ৩০ দিন সময় বেঁধে দিয়েছেন। অর্থাৎ দ’ণ্ডিত হলেও নির্ধারিত ৩০ দিন পর তা কার্যকর হবে। তাই এ সময়ে তিনি এক ধরনের জামিন সুবিধায় আছেন। হা’ই’কো’র্টের রায় বিচারিক আ’দা’লত ২৫ এপ্রিল গ্রহণ করেন। এ হিসাবে ২৫ মে পর্যন্ত তার আত্মসম’র্পণ করার সময় আছে। এ মুহূর্তে আইনি বিষয়গুলো দেখা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, বিচারিক আ’দা’লতের রায় যেহেতু বহাল রাখা হয়েছে এজন্য আত্মসম’র্পণ করে কারাগারে যেতে হবে। এরপর আম’রা জামিন আবেদন করব। কারাগারে না গিয়ে জামিন করানোর কোনো সুযোগ নেই। আপিল বিভাগে লিভ টু আপিল করা হবে।

জ্ঞাতআয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের দায়ে এক যুগ আগে বিচারিক আ’দা’লতের রায়ে হাজি সেলিমের ১৩ বছরের কারাদ’ণ্ড হয়েছিল। রায়ের বি’রু’দ্ধে তিনি হা’ই’কো’র্টে আপিল করেন। এ আপিলের শুনানি নিয়ে গত বছরের ৯ মা’র্চ হা’ই’কো’র্ট রায় দেন। তাতে তার ১০ বছরের সাজা বহাল রাখা হয়। ফেব্রুয়ারিতে হা’ই’কো’র্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়। রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে তাকে ঢাকার বিশেষ জজ আ’দা’লত-৭-এ আত্মসম’র্পণ করতে নির্দেশ দেন হা’ই’কো’র্ট। এরপর হা’ই’কো’র্টের দেওয়া পূর্ণাঙ্গ রায়সহ নথিপত্র ২৫ এপ্রিল বিচারিক আ’দা’লতে পাঠানো হয়।

Back to top button