জাতীয়

জামিন নামঞ্জুর, হাজী সেলিম কারাগারে

দু’র্নী’তির মা’ম’লায় ১০ বছরের দ’ণ্ডপ্রাপ্ত পুরান ঢাকার সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের জামিন নামঞ্জুর করেছেন আ’দা’লত। রোববার (২২ মে) ঢাকার বিশেষ জজ আ’দা’লত-৭ এর বিচারক শহিদুল ই’স’লা’ম এ আদেশ দেন।

এদিন বেলা ১২টার দিকে আ’দা’লতে হাজির হন তিনি। আত্মসম’র্পণের পর তার আইনজীবী শ্রী প্রা’ণ নাথ আ’দা’লতে আপিলের শর্তে বা যে কোনো শর্তে জামিন আবেদন করেন। দু’র্নী’তি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে মোশাররফ হোসেন কাজল জামিনের বিরোধিতা করেন।

এ সময় আ’সা’মিপক্ষের আইনজীবীরা তাকে কারাগারে ডিভিশন ও সুচিকিৎসার দাবি জানান। বিচারক কারাবিধি অনুযায়ী জে’ল কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।হাজী সেলিমের আগমন উপলক্ষে ঢাকা এজলাস কক্ষের বাইরে ও আ’দা’লতের প্রবেশ মুখে নিরাপত্তা জো’রদার করা হয়। এ সময় নেতাকর্মীরা আ’দা’লতের বাইরে ভিড় করেন।

গত ৯ মা’র্চ অ’বৈ’ধ সম্পদ অর্জনের মা’ম’লায় হাজী সেলিমকে বিচারিক আ’দা’লতের দেওয়া ১৩ বছর সাজা কমিয়ে ১০ বছর কারাদ’ণ্ড বহাল রেখে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করেন বিচারপতি মো. মঈনুল ই’স’লা’ম চৌধুরী এবং বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হা’ই’কো’র্ট বেঞ্চ।

রায়ে তিন বছরের দ’ণ্ড থেকে খালাস পান হাজী সেলিম। দুই বিচারপতির স্বাক্ষরের পর ৬৮ পৃষ্ঠার রায়ের কপি পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে তাকে বিচারিক আ’দা’লতে আত্মসম’র্পণ করতে বলা হয়। এ সময়ের মধ্যে আত্মসম’র্পণ না করলে তার জামিন বাতিল করে গ্রে’প্তা’রি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেন হা’ই’কো’র্ট।

তবে গত ৩০ এপ্রিল সন্ধ্যায় থাইল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়েন হাজী সেলিম। আ’দা’লতের দ’ণ্ড মা’থায় নিয়ে হাজী সেলিম দেশ ছাড়ায় শুরু হয় বিতর্ক। তখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কা’মাল জানান, হাজী সেলিম জরুরি চিকিৎসার জন্য ব্যাংককে গিয়েছিলেন। আইন মেনেই বিদেশে গেছেন এবং আইন মেনেই আবার চলে এসেছেন।

এরপর গত ৫ মে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে থাই এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে দেশে ফিরেন হাজী সেলিম। দেশে ফিরেই লালবাগে তার নির্বাচনী এলাকার শাহানি বেগম নামে স্থানীয় এক বাসিন্দার জানাজায় অংশ নেন। পরে লালবাগ থেকে আজিমপুর কবরস্থানে গিয়ে স্ত্রী’র কবর জিয়ারত করেন তিনি।তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ২৪ অক্টোবর হাজী সেলিমের বি’রু’দ্ধে অ’বৈ’ধভাবে সম্পদ অর্জন এবং ৫৯ কোটি ৩৭ লাখ ২৬ হাজার ১৩২ টাকার তথ্য গো’প’নের অ’ভিযোগে লালবাগ থা’নায় মা’ম’লা দায়ের করে দুদক।

Back to top button