জাতীয়

গাড়ির জ্বালানি হিসেবেও সয়াবিন তেল ব্যবহার করা হচ্ছে

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেছেন, গাড়িতেও এখন জ্বালানি হিসেবে সয়াবিন তেল খাচ্ছে। গতকাল শনিবার ২১ মে দুপুরে ফরিদপুরের জে’লা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অ’তিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, বিশ্বে বায়োফুয়েলের চাহিদা তৈরি হওয়ায় ব্রাজিল এখন গাড়ির জ্বালানি হিসেবেও সয়াবিন তেল ব্যবহার করছে। এজন্য তারা সয়াবিন রপ্তানি কমিয়ে দিয়েছে। আবার ক’রো’নার পর সব পোর্ট যখন খুলে যায় তখন তারা রেন্টও বাড়িয়ে দিয়েছে। বিশ্বের সবকটি বড় কন্টেইনার কোম্পানি ভাড়া অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় আমাদের অনেকেরই ক’ষ্ট হচ্ছে। এজন্য সরকার টিসিবির মাধ্যমে এক কোটি পরিবারকে ভর্তুকি মূল্যে তেল, চিনি ও ডাল দিয়েছে রোজার সময়। আগামী জুনের মধ্যে পাঁচ কোটি মানুষকে টিসিবি পণ্যের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।

তিনি বলেন, এতদিন বাজার থেকে কিনে ভর্তুকি মূল্যে সরকার জনগণের মাঝে টিসিবির পণ্য বিক্রি করতো। এখন সরকার সরাসরি বিদেশ থেকে আম’দানি করে টিসিবির মাধ্যমে ওই পণ্য বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতে আমাদের ভর্তুকির পরিমাণ কমে যাবে।

এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এ সিনিয়র সচিব বলেন, কিছু ব্যবসায়ী খা’রা’প, কিন্তু সব ব্যবসায়ী না। এবার যেভাবে বোতল কে’টে তেল বিক্রি করা দেখলাম, এটি তো মিল মালিক বা বড় ব্যবসায়ীরা করেনি। আশির দশকে দেশের মানুষ রান্নায় সরিষার তেল ব্যবহার করতেন কিন্তু এখন সবাই সয়াবিন তেল ব্যবহারে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। সরকার বিকল্প ব্যবহারের গুরুত্ব তুলে ধরতে চিন্তাভাবনা করছে। এজন্য সরিষা, বাদাম, তেল, তিশি, রাইস ব্রান্ডের তেলের ব্যবহার বাড়াতে হবে।

 

Back to top button