জাতীয়

চাকরিচ্যুত শ্রমিকদের ৪০০ কোটি টাকা দিলেন ড. ইউনূস

রূপালি জগতের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ার ও সামাজিক সংগঠন নিয়ে কাজ করায় জীবনে অনেক পুরস্কার-সম্মাননা পেয়েছেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

২১ মে ভা’রত থেকে আজীবন নায়করাজ রাজ্জাক সম্মাননা পেয়েছেন তিনি। এই সম্মাননা ইলিয়াস কাঞ্চনের জন্য স্পেশাল তথা বিশেষ কিছু। এমনটিই জানিয়েছেন ঢাকাই সিনেমা’র এ নন্দিত অ’ভিনেতা।

এর কারণ হিসেবে কাঞ্চন জানিয়েছেন, এ সম্মাননার সঙ্গে জড়িয়ে আছে তার পিতৃতুল্য নায়করাজ রাজ্জাকের নাম।শনিবার সন্ধ্যায় কলকাতার ললিত গ্রেট ইস্টার্ন হোটেলে ইলিয়াস কাঞ্চনের সম্মাননা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পাশাপাশি কলকাতার বিনোদন জগতের তারকাও উপস্থিত ছিলেন।

নিজের ক্যারিয়ারে প্রায় সাড়ে তিনশর বেশি সিনেমায় অ’ভিনয় এবং সড়ক নিরাপত্তা নিয়ে আ’ন্দোলনের জন্য তাকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়েছে।সম্মাননা হাতে নিয়ে সেই অনুষ্ঠানে ইলিয়াস কাঞ্চন সৃষ্টিক’র্তাকে ধন্যবাদ জানান।

সম্মাননা পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় ‘বেদের মে’য়ে জোছনা’খ্যাত তারকা বলেন, ‘এ সম্মাননা আমা’র জন্য স্পেশাল। একে তো কাজের স্বীকৃতি, পাশাপাশি যে মানুষটির নামে এই জীবনকীর্তি সম্মাননা পেলাম, তিনি আমাকে সন্তানতুল্য মনে করতেন এবং আমায় বলেছিলেন, একসময় আমা’র জায়গায় যদি কেউ আসে সে হবে ইলিয়াস। এতটাই উনি আমাকে ভালোবাসতেন। উনার সন্তানও অ’ভিনয় জগতে আছেন, কিন্তু সন্তানের জন্য এ কথা কখনও বলেননি। আমা’র জন্য বলেছিলেন। সেই মানুষটার নামে এই সম্মান নিতে পেরে ভালো লাগছে। এটা আমা’র ভাগ্য মনে করি।’

সম্মাননা পেয়ে একটি আক্ষেপও প্রকাশ করেন ইলিয়াস কাঞ্চন। বলেন, ‘বাংলাদেশের ছবিতে অ’ভিনয় করে নায়করাজ হয়েছেন রাজ্জাক, অথচ তার নামাঙ্কিত কোনো পুরস্কার বাংলাদেশে চালু হয়নি। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে যারা নেতৃত্বে আছেন, তাদের এটি ভাবা উচিত।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি বলেন, ‘আমি সৃষ্টিক’র্তাকে ধন্যবাদ জানাই। মানুষের কর্মের জন্যই আম’রা। বিশেষ করে আমা’র দ্বারা মানুষের যেন ভালো কর্ম হয়- এটিই শুধু সৃষ্টিক’র্তার কাছে আবেদন।’

Back to top button