জাতীয়

পি কে হালদারকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে

ভা’রতে গ্রে’প্তা’র আ’লো’চি’ত রিলায়েন্স ফাইন্যান্স ও এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমা’র (পি কে) হালদারকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন পু’লিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

সোমবার (২৩ মে) দুপুরে রাজধানীর মোহাম্ম’দপুর আল মানার হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন কবজি বিচ্ছিন্ন পু’লিশ সদস্য জনি খানকে দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি এ কথা বলেন। চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় আ’সা’মির দায়ের কোপে জনি খানের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়।

আইজিপি বলেন, পি কে হালদারের বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা’টি দুদকের। আম’রা দুদককে সহযোগিতা করছি। তাকে ভা’রতীয় ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরোর (এনসিবি) মাধ্যমে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। এছাড়া তিনি দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এনসিবির মাধ্যমে গ্রে’প্তা’রের চেষ্টা করা হয়। আর এ বিষয়ে আমাদের সঙ্গে ভা’রতের এনসিবির যোগাযোগ রয়েছে।

গত ১৪ মে ভা’রতের পশ্চিমবঙ্গে অ’ভিযান চালিয়ে পি কে হালদারকে গ্রে’প্তা’র করে ভা’রতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

বাংলাদেশ থেকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে যাওয়ার অ’ভিযোগ রয়েছে পি কে হালদারের বি’রু’দ্ধে। গ্রে’প্তা’রের আগে ভা’রতে তার বিপুল পরিমাণ অর্থের সন্ধান পাওয়া যায়। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় পি কে হালদারের সহযোগী সুকুমা’র মৃধার কাছে এই অর্থের সন্ধান মেলে। ১৩ মে সকাল থেকেই পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন স্থানে অ’ভিযান চালায় ইডি।

Back to top button