আন্তর্জাতিক

ই’রানের সেই কর্নেলকে হ’ত্যা করেছে ই’স’রায়েল!

ই’স’রায়েলের নির্দেশে তেহরানে ই’রানের রেভল্যুশনারি গার্ড বাহিনীর কর্নেল হাসান সায়াদ খোদাইকে হ’ত্যা করা হয়। আর এটি ই’স’রায়েলই যু’ক্তরাষ্ট্রকে জানিয়েছে।

মা’র্কিন সংবাদমাধ্যম দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের একটি প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়েছে।
গত রোববার (২২ মে) তেহরানে ই’রানের রেভল্যুশনারি গার্ড বাহিনীর কর্নেল হাসান সায়াদ খোদাইকে গু’লি করে হ’ত্যা করা হয়। ই’রানের প্রেসিডেন্ট রাইসি এই হ’ত্যাকা’ণ্ডের জন্য দেশটির শত্রুদেরকে দায়ী করেছিলেন। এ নিয়ে রাইসি বলেন, আমি এই অ’প’রা’ধের ঘটনা নিবিড়ভাবে ত’দ’ন্তের জন্য নিরাপত্তা কর্মক’র্তাদের নির্দেশ দিয়েছি। অ’প’রা’ধীদের বি’রু’দ্ধে প্রতিশোধ অবশ্যই নেওয়া হবে, এ ব্যাপারে স’ন্দেহের কোনও অবকাশ নেই।

হাসান সায়াদ খোদাইর হ’ত্যাকা’ণ্ডের বিষয়ে মা’র্কিন গোয়েন্দা কর্মক’র্তাদের বরাত দিয়ে দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, ই’স’রায়েল আ’মেরিকান কর্মক’র্তাদের জানিয়েছে যে এই হ’ত্যার পেছনে তাদের হাত ছিল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই সূত্র জানায়, ই’স’রায়েল যু’ক্তরাষ্ট্রকে জানিয়েছে যে ই’রানের রেভল্যুশনারি গার্ডের বিদেশি অ’পারেশন শাখা কুদস ফোর্সের কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য এই হ’ত্যাকা’ণ্ডের মাধ্যমে তেহরানকে সতর্ক করা হয়েছে।গত মঙ্গলবার (২৪ মে) খোদাইর শেষ কৃত্যে অংশ নেন হাজার হাজার ই’রানি।

২০২০ সালের পর খোদাইর হ’ত্যাকা’ণ্ড ছিল ই’রানে সবচেয়ে বড় হা’ম’লার ঘটনা। ২০২০ সালের নভেম্বরে ই’রানের শীর্ষস্থানীয় পরমাণুবিজ্ঞানী মহসেন ফাকরিজাদেহ হ’ত্যার শিকার হন। সেই হ’ত্যার ঘটনায় ই’স’রায়েলকে দায়ী করেছিল ই’রান। ই’স’রায়েল তখন হ’ত্যাকা’ণ্ডের দায় স্বীকার কিংবা অস্বীকার কোনওটিই করেনি।

সাম্প্রতি কয়েকবছরে কুদস বাহিনীর যেসব নেতা নি’হ’ত হয়েছেন, তাদের মধ্যে খোদাই দ্বিতীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি। এর আগে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ই’রাকে বিমান হা’ম’লায় কুদস ফোর্সের শীর্ষ সাম’রিক কমান্ডার জেনারেল কাশেম সোলাই’মানি নি’হ’ত হন।তার হ’ত্যাকা’ণ্ডকে কেন্দ্র করে যু’ক্তরাষ্ট্র ও ই’রানের মধ্যে উ’ত্তে’জ’না তৈরি হয়েছিল।

Back to top button