জাতীয়

টিপু হ’ত্যাকা’ণ্ডে মূল পরিকল্পনাকারী-সমন্বয়ক ছিলেন মু’সা

আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ই’স’লা’ম টিপু হ’ত্যাকা’ণ্ডে মূল পরিকল্পনাকারী ও সমন্বয়ক ছিলেন মু’সা। মতিঝিল এলাকায় আগের দুটি হ’ত্যাকা’ণ্ড, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারসহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে রি’মা’ন্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে মু’সাকে। এর আগে টিপু হ’ত্যায় গ্রে’প্তা’র ব্যক্তিদের মুখোমুখি করা হবে।

মতিঝিল থা’না আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ই’স’লা’ম টিপুকে হ’ত্যার পরিকল্পনা করে দেশ ছেড়েছিলেন সুমন সিকদার ওরফে কিলার মু’সা। দুবাই গিয়ে আশ্রয় নিয়েছিলেন সেখানে পালিয়ে থাকা আরেক শীর্ষ স’ন্ত্রা’সী জিসানের কাছে। সেখান থেকে ওমানে। পালিয়ে বাঁ’চার চেষ্টা করেও হয়নি শেষ রক্ষা। ইন্টারপোলের সহায়তায় এখন মু’সা ডিবির জালে।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) মু’সাকে ওমান থেকে দেশে আনা হলেও আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করা হয় শুক্রবার। সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পু’লিশের অ’তিরিক্ত পু’লিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, মু’সাই ছিলেন টিপু হ’ত্যাকা’ণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ও সমন্বয়ক।

অ’তিরিক্ত কমিশনার আরও জানান, টিপু হ’ত্যা মা’ম’লায় গ্রে’প্তা’র ১২ আ’সা’মিকে মুখোমুখি করা হবে মু’সার। আগের দুটি হ’ত্যাকা’ণ্ড, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারসহ বেশ কয়েকটি বিষয় সামনে রেখে চলবে ত’দ’ন্ত।

পু’লিশ বলছে, মু’সাকে রি’মা’ন্ড আনার পর জানা যাবে হ’ত্যার আসল র’হ’স্য। আরেক অ’ভিযু’ক্ত মোল্লা শামীমকেও দেশে ফেরানোর চেষ্টা চলছে।

গত ২৪ মা’র্চ রাতে রাজধানীর শাহ’জাহানপুরে এলোপাতাড়ি গু’লিতে নি’হ’ত হন জাহিদুল ই’স’লা’ম টিপু। সে সময় ঘটনাস্থলে রিকশায় বসে থাকা কলেজছা’ত্রী সামিয়া আফরিন ওরফে প্রীতি গু’লিবিদ্ধ হয়ে মা’রা যান। এ ঘটনায় শাহ’জাহানপুর থা’নায় একটি মা’ম’লা হয়। ডিবি মতিঝিল বিভাগ এ ঘটনার ত’দ’ন্ত শুরু করে।

একপর্যায়ে মূল শুটার মাসুম মোহাম্ম’দ আকাশকে গত ২৭ মা’র্চ গ্রে’প্তা’র করা হয়। আ’দা’লতে ১৬৪ ধারায় দেয়া জবানব’ন্দিতে সে নিজের দোষ স্বীকার করে এবং হ’ত্যাকা’ণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ও সমন্বয়কারী হিসেবে শীর্ষ স’ন্ত্রা’সী সুমন সিকদার মু’সার নাম জানায়। সংশ্লিষ্টতা পেয়ে তাকে গ্রে’প্তা’রের অ’ভিযানে নামে ডিবি।

 

Back to top button