জাতীয়

এমপি বাহারকে নিয়ে ইসির অসহায়ত্ব নাকি অসন্তোষ প্রকাশ

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে স্থায়ী সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার নির্বাচনী এলাকা না ছাড়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনের অসহায়ত্ব নিয়ে বিএনপির কোনো মন্তব্য নেই বলে জানিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, বাহারকে নিয়ে নির্বাচন কমিশন অসহায়ত্ব প্রকাশ করলো নাকি অন্তোষ প্রকাশ করলো এতে আমা’র কোনো প্রতিক্রিয়া নেই। কারণ নির্বাচনের আচরণবিধি সরকার ভালো করেই জানে।মঙ্গলবার (১৪ জুন) নয়াপল্টনে ভাসানী ভবনে এক স্ম’রণ সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি। প্রয়াত বিএনপির নেতা গৌতম চক্রবর্তী সম্মণে এ সভা’র আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী কৃষকদল।

গয়েশ্বর বলেন, বাহার একজন সংসদ সদস্য। সংসদ সদস্য হচ্ছে সরকারের অংশ। সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে তাকে অ’প’রা’ধ থেকে বিরত রাখা। নির্বাচন কমিশনের অহায়ত্ব প্রকাশ করলেও বাহারের কুমিল্লা থাকা সেটাও সরকারের ইচ্ছা, ইচ্ছার বহিঃপ্রকাশ। নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচন নিয়ে আম’রা দলীয়ভাবে বা ব্যক্তিগতভাবে কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে চাই না। কারণ আম’রা এ সরকারকে স্বীকার করি না।

হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ভালো নেই বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া কেমন আছেন, আপনারা যতুটুক জানেন আমিও ততটুকুই জানি। তার চেয়ে বেশি জানি না। কারণ আমি চিকিৎসক নয়।তিনি আরও বলেন, যেখানে আম’রা আমাদের নেত্রীকে দুই নয়ন দেখতে পারি না, অথবা তার আশপাশের বারান্দায় দাঁড়িয়েও একটু ক’ষ্ট লাগব করার সুযোগ পাই না। সেখানে পত্রপত্রিকায় তার চিকিৎসা স’ম্প’র্কে চিকিৎসকের মাধ্যমে যে কতটুকু আসে, এরচেয়ে বেশি জানার সুযোগ আমা’র নেই।

গয়েশ্বর আরও বলেন, তবে ম্যাডাম যে ভালো নেই, সেটা আপনার বোঝেন, আম’রা বুঝি। সেই কারণে আম’রা উনার জন্য কিছু করতে পারি আর না পারি, তার জন্য দোয়া করে যাচ্ছি। সৃষ্টিক’র্তা যেন জনগণের দোয়া কবুল করেন। তিনি যেন সুস্থ থাকেন। সীমিত চিকিৎসার মাধ্যমে খালেদা জিয়া যেন সুস্থ হয়ে বিএনপির মধ্যে ফিরে আসতে পারেন তার জন্য দোয়া চান গয়েশ্বর।

সরকার জো’র করে ক্ষমতা দল করে আছে বলে দাবি করে গয়েশ্বর বলেন, তাদের গদিচুত্য করা আমাদের প্রধানকাজ। আর সেইদিনই এই দখলদারকে মুক্ত করতো পারবো, সেইদিনই নির্বাচন কমিশনসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে কথা বলবো।স্ম’রণসভায় কৃষকদলের সভাপতি হাসান জারিফ তুহিন, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ই’স’লা’ম বাবুল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Back to top button