জাতীয়

গ্যাস সংযোগের নামে বিপুল অর্থ আত্মসাৎ আ. লীগ নেতার!

তিতাস গ্যাস সংযোগ দেওয়ার নামে আওয়ামী লীগের এক নেতার বি’রু’দ্ধে কোটি টাকা আত্মসাতের অ’ভিযোগ উঠেছে। শনিবার (১৮ জুন) দুপুরে সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ ক্রা’ই’ম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অ’ভিযোগ করেন রাজধানী বাড্ডা থা’নার বেরাইদ এলাকার ভুক্তভোগীরা।

অ’ভিযোগ উঠেছে বেরাইদ এলাকার সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের বি’রু’দ্ধে। জানা গেছে, জাহাঙ্গীর আলম বাড্ডা থা’নার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মহানগর উত্তর আ. লীগের সদস্য। তাকে দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তি ও টাকা ফেরতের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীদের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো. বিপ্লব। তিনি বলেন, আম’রা বাড্ডা থা’নার বেরাইদ এলাকার বাসিন্দা। আমাদের বেরাইদ এলাকার প্রায় তিন হাজার মানুষকে তিতাস গ্যাস সংযোগ দেওয়ার নামে আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

তিনি বৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দেওয়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু অ’তিরিক্ত পাইপ সংযোগ করে অ’বৈ’ধভাবে প্রায় তিন হাজার পরিবারকে গ্যাস লাইন সংযোগ দেন। এ জন্য প্রত্যেক পরিবারের কাছ থেকে পঁচিশ থেকে ত্রিশ হাজার টাকা করে নিয়েছেন। চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় জাহাঙ্গীর আলমের লোক তাজম আলীর মাধ্যমে রশিদের মাধ্যমে প্রত্যেকের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন।

যখন আম’রা জানতে পারলাম আমাদের তিতাস গ্যাসের লাইন সংযোগ অ’বৈ’ধ, তখন জাহাঙ্গীর আলমের কাছে জানতে চেয়েছিলাম কেন অ’বৈ’ধ গ্যাস লাইন দেওয়া হলো? তখন তিনি আমাদের বলেছেন, অ’বৈ’ধ গ্যাস লাইন বৈধ করে দেওয়া হবে। তিনি সেটি না করায় তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ আমাদের লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এতে করে আম’রা এলাকাবাসী বিপাকে পড়েছি।

গ্যাস লাইন সংযোগ দেওয়ার দাবি জানিয়ে লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, আম’রা দু’র্নী’তিবাজ সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তি চাই। আমাদের কাছ থেকে নেওয়া টাকা ফেরত দেওয়ার দাবি জানাই।

সরকারের কাছে বেরাইদ এলাকার তিন হাজার পরিবারকে বৈধ গ্যাস লাইন সংযোগ দেওয়ার অনুরোধও করেন ভুক্তভোগীরা।

এ ব্যাপারে জানতে আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমের মোবাইলে কয়েকবার কল করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মো. সফি মিয়া, আতাউর রহমান প্রমুখ।

Back to top button