আন্তর্জাতিক

খাশোগি হ’ত্যার পর প্রথম তুরস্ক সফরে সৌদি যুবরাজ

২০১৮ সালে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাশোগি হ’ত্যাকা’ণ্ডের পর প্রথমবারের মতো তুরস্ক সফরে গেছেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্ম’দ বিন সালমান। সৌদিদের মিত্র যু’ক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের রিয়াদ সফরের এক মাস আগে আংকারায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের সঙ্গে আলোচনায় বসলেন যুবরাজ সালমান।

তুরস্কের সরকার যু’ক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী ভিন্নমতাবলম্বী সৌদি সাংবাদিক খাশোগি হ’ত্যা নিয়ে যে তথ্য প্রকাশ করেছিল তাতে বেশ বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছিলেন মুহাম্ম’দ বিন সালমান। সে কারণে কূটনৈতিক টানাপড়েন নিরসনে গত এপ্রিলে সৌদি সফরে যান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান।

স’ম্প’র্ক স্বাভাবিক করতে খাশোগি হ’ত্যাকা’ণ্ডের বিচার স্থগিত করে সৌদিতে স্থা’নান্তরের নির্দেশ দিয়েছে তুর্কি সরকার।
আরব বসন্তের সময় আদর্শগত কারণে তুরস্ক যেসব দেশের বিরোধিতা করেছিল বর্তমানে সেসব দেশ থেকেই বিনিয়োগ পাওয়ার চেষ্টা করছে। অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক কারণে নিজের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বীদের অন্যতম সৌদি আরবের সঙ্গে স’ম্প’র্কোন্নয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এরদোয়ান।

আর এক বছর পরেই তুরস্কে জাতীয় নির্বাচন। দেশটির মানুষের জীবনযাত্রার মান এখন ভালো নয়। এরদোয়ানের অ’প্রচলিত অর্থনৈতিক পদক্ষেপের কারণে তুরস্কে মুদ্রাস্ফীতি দেখা দিয়েছে। দেশটিতে নিত্যপণ্যের দাম প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে। তাই আগামী নির্বাচন এরদোয়ানের দুই দশকের শাসনামলকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলবে।

ওয়াশিংটন ইনস্টিটিউটের এক তুরস্ক বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘এটি সম্ভবত আংকারায় গত এক দশকে সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ বিদেশি নেতার সফরগুলোর একটি। এরদোয়ান শুধু নিজের চিন্তা করছেন। তিনি নির্বচনে জয় পেতে চান এবং এ জন্য নিজের দম্ভ বিসর্জন দিতেও রাজি। ’

সৌদি যুবরাজের এই সফরে কোনো সংবাদ সম্মেলন বা চুক্তি স্বাক্ষর হবে না। বিশ্লেষকদের বিশ্বা’স, বিশ্বসম্প্রদায় ও ই’রানের সম্ভাব্য নতুন পারমাণবিক চুক্তির আগে বড় ধরনের সম’র্থন অর্জন করতে চাইবেন সৌদি যুবরাজ। বর্তমান ভূরাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আংকারা খুবই সহায়ক হতে পারে বলে ধারণা করছে রিয়াদ।

তুরস্কের এক কর্মক’র্তা বলেন, বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে দুই নেতার মধ্যে আলোচনা হবে। এর মধ্যে ব্যাংকগুলোর মধ্যে সহযোগিতা এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসার ক্ষেত্রে সম’র্থনের বিষয় থাকবে।

Back to top button