আন্তর্জাতিক

পদ্মা সেতু উদ্বোধনে দেশে দেশে প্রবাসীদের উচ্ছ্বাস

স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আনন্দ-উল্লাস করেছেন প্রবাসীরা। এর মধ্যে বহুল প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে ভিন্নধ’র্মী আনন্দ-উৎসবের আয়োজন করা হয় সৌদি আরবে। আয়োজন ছিল স্পেনের মাদ্রিদে বাংলাদেশ দূতাবাসেও। অনুষ্ঠান হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকায়ও।

আন্তর্জাতিকভাবে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে স্ম’রণীয় করে রাখতে সৌদি আরবের বাংলাদেশ দূতাবাসে ভিন্নধ’র্মী আনন্দ উৎসবের আয়োজন করা হয়। এতে যোগ দেন দেশটিতে বসবাসরত প্রবাসীরা।

দিনটিকে বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন বলে অ’ভিহিত করেন দূতাবাসের কর্মক’র্তারা। বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, পদ্মা সেতু বাংলাদেশের মানুষের ম’র্যাদা ও সক্ষমতার প্রতীক।
এদিকে, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্পেনের বাংলাদেশ দূতাবাস। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাষ্ট্রদূত মোহাম্ম’দ সারোয়ার মাহমুদ। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে পদ্মা বহু’মুখী সেতুর অবদানের চিত্র তুলে ধরে এর সুফল বাংলাদেশের প্রতিটি অঞ্চলের মানুষ পাবেন বলে উল্লেখ করেন তিনি। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।
অনুষ্ঠানে পদ্মা সেতুর ওপর একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়। পরে কেক কা’টার মধ্য দিয়ে শেষ হয় অনুষ্ঠান।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উৎসব উদ্‌যাপন করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনের আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ। স্থানীয় সময় শনিবার (২৫ জুন) বিকেল থেকেই একটি কমিউনিটি সেন্টারে কয়েকশ নেতাকর্মী নিয়ে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনার সঙ্গে কেক কে’টে ও মিষ্টি বিতরণ করে এ উৎসব উদ্‌যাপন করা হয়।
দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করে বক্তব্য দেন সংগঠনের ভা’রপ্রাপ্ত সভাপতি নাছরুল্লা নাছরু।
নাজমুল হোসাইনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অ’তিথি ছিলেন সংগঠনের সেক্রেটারি মোক্তার মাদবর। বক্তব্য দেন যুবলীগের সভাপতি রুবেল মাদবর, সেক্রেটারি জামাল হোসাইন প্রমুখ।
সভায় রেমিট্যান্স পাঠানোর মাধ্যমে বাংলাদেশকে আরও এগিয়ে নিতে প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা।

Back to top button