জাতীয়

সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা, হতাশ গ্রামীণফোন

মানসম্মত সেবা দিতে না পারায় দেশের শীর্ষ মোবাইল ফোন অ’পারেটর গ্রামীণফোনের সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত অ’পারেটরটি নতুন কোনো সিম বিক্রি করতে পারবে না। বুধবার (২৯ জুন) দুপুরে বিষয়টি অনুমোদনের পরে বিটিআরসি এক নির্দেশনা গ্রামীণফোনে পাঠিয়েছে। গ্রাহকদের মানসম্মত সেবা নিশ্চিত করতে পারলেই নতুন সিম বিক্রি করতে পারবে অ’পারেটরটি।

নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র বলেন, অ’পারেটরটি মানসম্মত সেবা দিতে পারছে না। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তারা সিম বিক্রি করতে পারবে না।তবে বিটিআরসির এমন সিদ্ধান্তে হতাশ গ্রামীণফোন। শীঘ্রই বিটিআরসির সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসতে চায় বলে জানিয়েছে দেশের শীর্ষ এই মোবাইল ফোন অ’পারেটর।

এছাড়া বিটিআরসির অ’ভিযোগকে অস্বীকার করেছে গ্রামীণফোন। তাদের দাবি নিয়ন্ত্রক সংস্থার জ’রিপে বেঁধে মানদ’ণ্ডে উর্ত্তীণ হয়েছে তারা। তারপরও গ্রাহক সেবার মান বাড়াতে সর্বশেষ নিলাম থেকে ৬০ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কেনা হয়েছে। এ অবস্থায় নিয়ন্ত্রক সংস্থার সিদ্ধান্তে হতাশ তারা।

গ্রামীণফোনের হেড অব কমিউনিকেশনসের খায়রুল বাশার বলেন, বিটিআরসি এবং ইন্টান্যাশালন টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের বেঞ্চ’মা’র্কে আমাদের অবস্থা ভালো রয়েছে। আম’রা ধারাবাহিকভাবে আমাদের নেটওয়ার্ক আধুনিকায়ন করছি। সুতরাং এমন একটি বিষয়ে যখন কোনো ধরনের আলোচনা ছাড়া একটি চিঠি আসে, এটি আসলে আমাদের কাছে অ’প্রত্যাশিত।

বিটিআরসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, গ্রামীণফোনের বর্তমান গ্রাহক সংখ্যা (চলতি বছরের মে পর্যন্ত) ৮ কোটি ৪৯ লাখ ৫০ হাজার। জানা যায়, বর্তমানে এক মেগাহার্টজ তরঙ্গে গ্রামীণফোন ১৪ লাখ লাখ গ্রাহককে সেবা দিচ্ছে, অন্যান্য অ’পারেটরের চেয়েও যা বেশি। নতুন তরঙ্গ যু’ক্ত হলে তা হবে (এক মেগাহার্টজে) ৭ লাখ ৭০ হাজার গ্রাহক।

Back to top button