জাতীয়

অফিসে এসেই অ’প্রয়োজনীয় লাইট, ফ্যান এবং এসি বন্ধের নির্দেশ পলকের

এবার বিদ্যুৎ ও ব্যয় সাশ্রয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে এক মাসের চ্যালেঞ্জ নিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু’ক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এরই অংশ হিসেবে সকালে অফিসে এসেই অ’প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ ও ব্যয় না করতে নির্দেশনা দিয়েছেন পলক। আইসিটি বিভাগ সূত্র জানায়, আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে আগারগাঁয়ে আইসিটি টাওয়ারে আসেন প্রতিমন্ত্রী। ভবনে এসেই বিভিন্ন ফ্লোর ঘুরে অ’প্রয়োজনীয় লাইট, ফ্যান এবং এসি বন্ধের নির্দেশ দেন।

বিশেষ করে করিডোরের লাইটগুলো সব সময় বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেন প্রতিমন্ত্রী। এছাড়া যেখানে ডে লাইটের আলো আসবে সেখানে লাইটগুলো বন্ধ রাখা হবে। আর রুমের বাইরে থাকা অবস্থায় লাইট ও এসি বন্ধ এবং এসি ২৫ ডিগ্রির ঘরে রাখার নির্দেশনা দিয়েছেন পলক। পাশাপাশি ব্যয় সাশ্রয়ে অভ্যন্তরীণ মিটিংগুলোতে নাস্তার বদলে শুধু পানি সরবরাহের নির্দেশনা দিয়েছেন।

এ বিষয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, বিদ্যুৎ ও ব্যয় সাশ্রয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে সাড়া দিয়ে এক মাসের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছি। তবে সে কাজটি নিজের ঘর থেকে শুরু করা দরকার। আর সেজন্য নিজ নিজ অবস্থান থেকে সবাইকে সচেতন হতে হবে।

তিনি বলেন, সকালে অফিসে এসে আইসিটি বিভাগের ১৫টি ফ্লোর ঘুরলাম। দেখলাম অফিস, কিচেন, করিডরে অ’প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ ব্যবহার করছি। প্রত্যেকটি দপ্তরে ঘুরে ঘুরে অ’প্রয়োজনীয় সকল বৈদ্যুতিক বাল্ব ও এসি বন্ধের জন্য নির্দেশনা দিয়েছি।

পলক বলেন, আম’রা হিসাব করে দেখেছি আইসিটি বিভাগে ৭০ শতাংশ বিদ্যুৎ খরচ কমিয়ে আনা সম্ভব। তিনি বলেন, আসুন আম’রা আমাদের মূল্যবান জাতীয় সম্পদ বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হই।

এদিকে আইসিটি বিভাগের অন্যান্য খরচ কমিয়ে আনার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পলক বলেন, আম’রা অভ্যন্তরীণ মিটিংগুলোতে নাস্তা এবং খাওয়া-দাওয়ার ব্যয় কমিয়ে আনতে পারি। সেজন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, এর আগে সরকারি নির্দেশনায় এই বিভাগের কর্মক’র্তা-কর্মচারীদের বিদেশের ট্যুর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Back to top button