জাতীয়

যুবতীকে বাঁ’চাতে ৯৯৯ এ ফোন দেওয়া সেই রিকশাচালক পুরস্কৃত

চট্টগ্রাম মহানগরীর জিইসি এলাকায় ছয় দুর্বৃত্তের খপ্পর থেকে এক যুবতীকে বাঁ’চাতে পু’লিশকে ফোন করেছিলেন রিকশাচালক আবদুল হান্নান। এরপর পু’লিশ গিয়ে ওই যুবতীকে উ’দ্ধা’র ও তিনজনকে গ্রে’প্তা’র করে। পরে আরও তিনজনকে গ্রে’প্তা’র করে আ’দা’লতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রিকশাচালক আবদুল হান্নানকে পুরস্কৃত করেছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পু’লিশ (সিএমপি)।

বুধবার (২০ জুলাই) দুপুরে সেই রিকশাচালককে পুরস্কৃত করেছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পু’লিশ কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়। নিজ কার্যালয়ে ডেকে এনে তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন পু’লিশ কমিশনার।

সিএমপির এক সংবাদ বি’জ্ঞ’প্তিতে জানানো হয়, রোববার (১৭ জুলাই) দিবাগত রাত ১টার দিকে এক যুবতী রিকশায় করে যাচ্ছিলেন। এসময় তিন যুবক রিকশা থামিয়ে ওই না’রীকে ফ্লাইওভা’রের নিচের একটি টঙ ঘরের ভেতরে নিয়ে যায়। সেখানে ওই না’রীকেধ,, র্ষ, ণ করা হয়।

ঘটনা দেখতে পেয়ে রিকশাচালক আবদুল হান্নান জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে পু’লিশ পাঠানোর অনুরোধ করেন। খবর পেয়ে পু’লিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই না’রীকে উ’দ্ধা’র করে এবং তিনজনকে গ্রে’প্তা’র করে।

খুলশী থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) সন্তোষ কুমা’র চাকমা বলেন, রিকশাচালক আবদুল হান্নানের মতো সবাই সচেতন হলে, একে অ’পরের বিপদে এগিয়ে এলে দেশ অনেক সুন্দর হবে। অ’প’রা’ধও কমে যাবে। কেউ বিপদে পড়লে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল দিলে সুফল পাওয়া যায়। আম’রা রিকশাচালকের ফোন পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে টিম পাঠাই। তখন ভিকটিম না’রীকে উ’দ্ধা’রের পাশাপাশি তিনজনকে গ্রে’প্তা’র করা হয়। পরে পালিয়ে যাওয়া অন্য তিনজনকেও গ্রে’প্তা’র করা হয়। এরপর সোমবার তিনজনকে ও অন্য তিনজনকে মঙ্গলবার আ’দা’লতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Back to top button