জাতীয়

ক’রো’নায় ৩ জনের মৃ’ত্যু, শনাক্ত ৬২০

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ক’রো’নাভাই’রাসে আরও দুইজনের মৃ’ত্যু হয়েছে। তাদের নিয়ে এখন পর্যন্ত ২৯ হাজার ২৫৮ জনের প্রা’ণ কেড়ে নিল ভাই’রাসটি।

আর গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৬২০ জনের শরীরে ক’রো’না ধ’রা পড়েছে। তাদের নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ৮৯৯ জনে।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো ক’রো’নাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বি’জ্ঞ’প্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ হাজার ৩৯৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৭ হাজার ৪১৯টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৮ দশমিক ৩৬ শতাংশ। মহামা’রির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

বি’জ্ঞ’প্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ক’রো’না থেকে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৬৫ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৩৩ হাজার ২৫৯ জন।

দেশে ক’রো’নাভাই’রাসের প্রথম সংক্রমণ ধ’রা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মা’র্চ। প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মা’র্চ দেশে প্রথম মৃ’ত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেই বছর সর্বোচ্চ মৃ’ত্যু হয়েছিল ৬৪ জনের।

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় গত বছর জুন থেকে রোগীর সংখ্যা হু হু করে বাড়তে থাকে। ২৮ জুলাই একদিনে সর্বোচ্চ ১৬ হাজার ২৩০ জনের ক’রো’না শনাক্ত হয়েছিল।

২০২১ সালের ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে ক’রো’নায় মৃ’তের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৫ ও ১০ আগস্ট ২৬৪ জন করে মৃ’ত্যু হয়, যা মহামা’রির মধ্যে একদিনে সর্বোচ্চ মৃ’ত্যু। এরপর বেশকিছু দিন ২ শতাধিক মৃ’ত্যু হয়।

এরপর গত ১৩ আগস্ট মৃ’ত্যুর সংখ্যা ২০০ এর নিচে নামা শুরু করে। দীর্ঘদিন শতাধিক থাকার পর গত ২৮ আগস্ট মৃ’ত্যু ১০০ এর নিচে নেমে আসে।ডেল্টার পর করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন আ’ঘাত হানে।

গত ২০ এপ্রিল ক’রো’নায় মৃ’ত্যুর খবর দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এরপর টানা ৩০ দিন ক’রো’নায় মৃ’ত্যুশূন্য দিন পার করে বাংলাদেশ। সম্প্রতি ক’রো’নার চতুর্থ ঢেউ শুরু হয়েছে।

Back to top button