জাতীয়

সংসার করবেন না স্ত্রী’, হতাশায় নিজের ঘরেই কবর খুঁড়লেন স্বামী

বরগুনায় পারিবারিক কলহের কারণে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়া স্ত্রী’ হাজেরাকে ফেরাতে ব্যর্থ হয়ে হতাশায় নিজের ঘরে কবর খুঁড়েলেন স্বামী জাফর গাজী।

শুক্রবার (২২ জুলাই) বিকেল ৫ টার দিকে সদর উপজে’লার আয়লা ইউনিয়নের কদমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে গ্রাম পু’লিশ ও স্থানীয় জনতা কবর খোঁড়া বন্ধ করেন।
ঘটনাটি চাঞ্চল্য তৈরি করলে গ্রামের মানুষ ভির করতে শুরু করে।

আয়লা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রাম পু’লিশ সাইফুল ই’স’লা’ম জানান, প্রায় এক যুগের সংসার জাফর ও হাজেরার। তাদের সংসার জীবনে প্রায় নানা বিষয় নিয়ে ঝগড়া চলছিলো। চলতি সপ্তাহে এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদে দুই পক্ষের মধ্যে সালিশ বৈঠকের কথা রয়েছে। তারা দুজনেই এক মাস ধরে আলাদা থাকেন। নিজ ঘরেই কবর খুঁড়ার সংবাদ পেয়ে তিনি দ্রুত ছুটে গিয়ে জাফরকে কবর খোঁড়া থেকে বিরত রাখে এবং পু’লিশকে অবহিত করেন।

জাফর জানান, ১৩ বছর আগে ঢাকায় বিয়ে হয় তার স্ত্রী’ হাজেরার সঙ্গে। বিয়ের পর থেকেই হাজেরা তার কথার অবাধ্য ছিল। পরে তারা বরগুনার গ্রামের বাড়িতে বসবাস শুরু করেন। এখানেও কিছু দিন পরে পারিবারিক কলহের তৈরি হলে দু’জনে আলাদা থাকতে শুরু করেন। এ নিয়ে স্থানীয় জন প্রতিনিধির উপস্থিতিতে একাধিকবার সালিশ করলেও হাজেরা তা মানছেন না। সর্বশেষ চলতি বছরের ২২ জুন বুধবার তার সঙ্গে রাগ করে হাজেরা তার নিজের চায়ের দোকানে বসবাস শুরু করেন। তাকে দোকান থেকে ঘরে ফেরত আনার একাধিক চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে নিজের কবর খুঁড়তে শুরু করেছেন জাফর।

এ বিষয় হাজেরার রয়েছে ভিন্ন অ’ভিযোগ। তিনি জানান, ১৩ বছর আগে বিয়ের সময় তার সঙ্গে প্রতারণা করেছে জাফর। জাফরের আগের স্ত্রী’কে তালাক না দিয়েই মিথ্যা তালাকনামা তৈরি করে তা দেখিয়ে বিয়ে করেন তাকে। এ সব নিয়ে ঝগড়া ঝামেলা শুরু হলে গ্রামে চলে আসেন তারা। বর্তমানে সংসারে অমনোযোগী হওয়ায় প্রায় সময় ঝগড়া চলে আসছে তাদের মধ্যে। এখন সে জাফরের সঙ্গে সংসার করতে রাজি না।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কাজি মোখলেচুর রহমান জানান, মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে জাফর যাতে কোন অঘটন না ঘটাতে পারে সে জন্য ঘর থেকে গ্রাম পু’লিশের মাধ্যমে কদমতলা বাজারে নিয়ে আসা হয়েছে জাফরকে। পু’লিশকে খবর দেওয়া হয়েছে। পু’লিশ পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে।

বরগুনা সদর থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) আলী আহম্মেদ বাংলানিউজকে জানান, ঘটনাস্থলে পু’লিশ পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি আইনগতভাবে দেখা হবে।

Back to top button