জাতীয়

চাল আত্মসাতের মা’ম’লায় চেয়ারম্যান কারাগারে

চাঁদপুর সদরে অভ’য়াশ্রমকালীন জাট’কা ধ’রা থেকে বিরত থাকা জে’লেদের ৪.১ টন খাদ্য সহায়তার চাল আত্মসাতের মা’ম’লায় কল্যাণপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সাখাওয়াত হোসেন পাটোয়ারী রনিকে জে’লহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আ’দা’লত।

রোববার দুপুরে মা’ম’লার ধার্য তারিখে উচ্চ আ’দা’লতের নির্দেশে মা’ম’লা’টি শুনানি শেষে আ’সা’মিকে জে’লহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন জে’লা ও দায়রা জজ এসএম জিয়াউর রহমান।

মা’ম’লার বিবরণে জানা যায়, গত ১৮ মে সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮টায় কল্যাণপুর ইউনিয়নের নিবন্ধিত ৬৭১ জন জে’লের চাল বিতরণ করার সময় পরিষদের দুটি গোডাউনে বরাদ্দকৃত চালের ৫৩.৬৮ টন চালের স্থলে ৪৯.৬০ টন চাল পাওয়া যায়। ৪.১ টন চাল কম পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা (ইউএনও) সানিজদা শাহনাজ ওইদিন চাঁদপুর মডেল থা’নায় বাদী হয়ে চেয়ারম্যান মো. সাখাওয়াত হোসেন রনিকে আ’সা’মি করে মা’ম’লা করেন। উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তার নির্দেশে এবং পু’লিশের উপস্থিতিতে চালের দুটি গোডাউন সিলগালা করে দেওয়া হয়।

আ’দা’লত সূত্রে জানা গেছে, মা’ম’লার আ’সা’মি চেয়ারম্যান মো. সাখাওয়াত হোসেন রনি গত ১ জুন এই মা’ম’লায় উচ্চ আ’দা’লত থেকে ৬ সপ্তাহের আগাম জামিন পান। ওই সময় উচ্চ আ’দা’লত জামিন দেওয়ার পাশাপাশি মা’ম’লা’টি নিম্ন আ’দা’লতে শুনানির জন্য নির্দেশ দেন। উচ্চ আ’দা’লতের আগাম জামিন শেষ হয় চলতি মাসের ১২ তারিখে।

চাঁদপুর জে’লা ও দায়রা জজ আ’দা’লতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) রনজিৎ রায় চৌধুরী জানান, মা’ম’লার নিয়মিত তারিখে আ’সা’মি মো. সাখাওয়াত হোসেন রনি স্বেচ্ছায় আ’দা’লতে হাজির হন। মা’ম’লা’টি শুনানি হয়। জে’লেদের খাদ্য সহায়তার ৮২ বস্তা (৪.১ টন) চাল আত্মসাৎ করার কারণে বিচারক তার জামিন নামঞ্জুর করে জে’লহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এদিকে, গত ১৮ মে জে’লেদের ৪৯.৬০ টন চাল দুটি গোডাউনে সিলগালা অবস্থায় থাকায় নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়। যার কারণে চলতি মাসের ১৪ তারিখে জে’লেদের মানবিক দিক বিবেচনা করে আ’দা’লতের নির্দেশে উপজে’লা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্ম’দ হেলাল চৌধুরী ও মা’ম’লার বাদী ইউএনও এবং ইউপি সদস্যদের উপস্থিতিতে এগুলো বিতরণ করা হয়।

Back to top button