জাতীয়

ভোটের ফল পরিবর্তন: কলেজ শিক্ষকের বি’রু’দ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইসির চিঠি

নির্বাচনের ফলাফল পরিবর্তন করায় কালিয়াকৈর ডিগ্রী কলেজের সহকারি অধ্যাপক মোহাম্ম’দ রফিকুল ই’স’লা’ম-এর বি’রু’দ্ধে নির্বাচন কর্মক’র্তা (বিশেষ বিধান) আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।
সোমবার (২৫ জুলাই) ইসির উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এই সংক্রান্ত নির্দেশনাটি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো হয়।

এই সংক্রান্ত নির্দেশনায় বলা হয়- গত ১৫ জুন অনুষ্ঠেয় গাজীপুর জে’লার কালিয়াকৈর উপজে’লার মৌচাক ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ২২.মাঝুখান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভোট’কেন্দ্রে মোহাম্ম’দ রফিকুল ই’স’লা’ম, সহকারী অধ্যাপক, দর্শন বিভাগ, কালিয়াকৈর ডিগ্রী কলেজ, কালিয়াকৈর, গাজীপুর প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

নির্বাচনের পর ওই ভোট’কেন্দ্রের ৮নং সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোশারফ হোসেন, প্রিজাইডিং অফিসার কর্তৃক কেন্দ্রে ঘোষিত ফলাফল বহাল রাখার জন্য ইসি সচিবালয় বরাবর আবেদন দাখিল করেন। উক্ত আবেদনের বিষয়ে ত’দ’ন্ত করা হলে ত’দ’ন্ত প্রতিবেদনে ৮নং সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে ২২. মাঝুখান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভোট’কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মোহাম্ম’দ রফিকুল
ই’স’লা’ম ভোট’কেন্দ্রে ও রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে ভিন্ন ভিন্ন ফলাফল প্রদান করেন ম’র্মে ত’দ’ন্ত কমিটির নিকট প্রমাণিত হয়েছে।

ত’দ’ন্ত প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গাজীপুর জে’লার কালিয়াকৈর উপজে’লার মৌচাক ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে ২২. মাঝুখান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভোট’কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মোহাম্ম’দ রফিকুল ই’স’লা’ম ভোট’কেন্দ্রে ও রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে ভিন্ন ভিন্ন ফলাফল প্রদান করায় দায়িত্বহীন কার্যক্রম কোনক্রমেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না ম’র্মে মাননীয় নির্বাচন কমিশন তার বি’রু’দ্ধে নির্বাচন কর্মক’র্তা (বিশেষ বিধান) আইন, ১৯৯১ এর ধারা ৫ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সিদ্ধান্ত প্রদান করেছেন।

এই অবস্থায়, মাননীয় নির্বাচন কমিশনের উপরোক্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভোট’কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মোহাম্ম’দ
রফিকুল ই’স’লা’ম, সহকারী অধ্যাপক, দর্শন বিভাগ, কালিয়াকৈর ডিগ্রী কলেজ, কালিয়াকৈর, গাজীপুর এর বি’রু’দ্ধে নির্বাচন কর্মক’র্তা (বিশেষ বিধান) আইন, ১৯৯১ এর ধারা ৫ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করে দ্রুত সময়ে ইসি সচিবালয়কে অবহিত করার জন্য নির্দেশিত হয়ে অনুরোধ করা হলো।

যা আছে নির্বাচন কর্মক’র্তা (বিশেষ বিধান) আইনে:
৫। (১) কোন নির্বাচন-কর্মক’র্তা নির্বাচন সংক্রান্ত কোন ব্যাপারে প্রদত্ত কমিশন বা ক্ষেত্রমত রিটার্নিং অফিসারের কোন আদেশ বা নির্দেশ পালনে ইচ্ছাকৃতভাবে ব্যর্থ হইলে বা অস্বীকৃতি প্রকাশ করিলে বা নির্বাচন সংক্রান্ত কোন আইনের বিধান ইচ্ছাকৃতভাবে লঙ্ঘন করিলে বা উহার অধীন কোন অ’প’রা’ধ করিলে তিনি অসদাচরণ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অসদাচরণ তাহার চাকুরী বিধি অনুযায়ী শা’স্তিযোগ্য অ’প’রা’ধ বলিয়া বিবেচিত হইবে৷

(২) কোন নির্বাচন-কর্মক’র্তা উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অসদাচরণ করিলে তাহার নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ তাহাকে চাকুরী হইতে অ’পসারণ বা বরখাস্ত করিতে পারিবে বা বাধ্যতামূলক অবসর দিতে পারিবে বা তাহার পদাবনতি করিতে পারিবে বা তাহার পদোন্নতি বা বেতন বৃদ্ধি অনধিক দুই বত্সরের জন্য স্থগিত রাখিতে পারিবে:
তবে শর্ত থাকে যে, উক্তরূপ কোন শা’স্তি উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত ব্যর্থতা, অস্বীকৃতি, লঙ্ঘন বা অ’প’রা’ধের জন্য অন্য কোন আইনে নির্ধারিত কোন দ’ণ্ড প্রদান বা উহার জন্য কোন আইনগত কার্যধারা গ্রহণ ব্যাহত বা বারিত করিবে না৷

(৩) কোন নির্বাচন-কর্মক’র্তা উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অসদাচরণ করিলে কমিশন বা ক্ষেত্রমত কমিশনের সম্মতিক্রমে রিটার্নিং অফিসার তাহাকে, তাহার বি’রু’দ্ধে তজ্জন্য তাহার চাকুরীবিধি অনুযায়ী শৃঙ্খলামূলক কার্যধারা গ্রহণ সা’পেক্ষে, অনধিক দুই মাসের জন্য সাময়িকভাবে চাকুরী হইতে বরখাস্তের আদেশ দিতে পারিবেন এবং উক্তরূপ বরখাস্তের আদেশ তাহার নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক তাহার চাকুরী বিধি অনুযায়ী প্রদত্ত হইয়াছে বলিয়া গণ্য হইবে এবং তদনুযায়ী ইহা কার্যকর হইবে৷

(৪) উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অসদাচরণের জন্য কোন নির্বাচন-কর্মক’র্তার বি’রু’দ্ধে শৃঙ্খলামূলক কার্যধারা গ্রহণের জন্য কোন নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষকে কমিশন বা ক্ষেত্রমত রিটার্নিং অফিসার অনুরোধ করিলে উক্ত কর্তৃপক্ষ উক্তরূপ অনুরোধ প্রাপ্তির এক মাসের মধ্যে উক্তরূপ কার্যধারা গ্রহণ করিবে এবং তত্স’ম্প’র্কে কমিশনকে অবহিত করিবে৷

Back to top button