আন্তর্জাতিক

উ’ত্তে’জ’নার মাঝেই টেলিফোন আলাপ করতে চলেছেন বাইডেন-শি

তাইওয়ান ইস্যুতে উ’ত্তে’জ’নার মধ্যে টেলিফোন আলাপ করতে যাচ্ছেন মা’র্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। বৃহস্পতিবার দুই নেতার আলোচনার কথা রয়েছে। চার মাসের মধ্যে এটাই তাদের প্রথম টেলিফোন আলাপ হবে। দুই নেতার আলোচনায় তাইওয়ান ও ই*উ*ক্রে*নে রা*শি*য়ার আগ্রাসনের বিষয়টি গুরুত্ব পাবে বলে জানা গেছে।

এদিকে মা’র্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর ঘিরে শুরু হয়েছে উ’ত্তে’জ’না। পেলোসি তাইওয়ান সফরে গেলে ওয়াশিংটনকে ভ’য়াবহ পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন। এ পরিস্থিতিতেই শির সঙ্গে আলোচনা করছেন বাইডেন।

এ ছাড়া তাইওয়ানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী চিউ কুও-চ্যাং উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) ২০২৫ সালের মধ্যে তাইওয়ানে আক্রমণ করার ‘সম্পূর্ণ সক্ষমতা’ পাবে।

হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তার মুখপাত্র জন কিরবি মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতা বিষয়টিও ফোকাস হবে। এ নিয়ে দুই নেতার মধ্যে পঞ্চ’মবার আলোচনা হবে বলে জানান তিনি।

পেলোসি তাইওয়ান সফরে গেলে তাঁর বিমানে হা’ম’লা চালানোর আশ’ঙ্কা খুবই সামান্য বলে বিশ্বা’স করছেন যু’ক্তরাষ্ট্রের কর্মক’র্তারা। তবে মা’র্কিন পার্লামেন্টের স্পিকার এমন এক উত্তপ্ত স্থানে সফর করতে যাচ্ছেন যেখানে ভুল পদক্ষেপ কিংবা ভুল বোঝাবুঝিতেও তাঁর নিরাপত্তা ঝুঁ’কিতে পড়তে পারে। ফলে যে কোনো পরিস্থিতির জন্য পরিকল্পনা সাজাচ্ছে মা’র্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন।

মা’র্কিন কর্মক’র্তারা জানিয়েছেন, পেলোসির তাইওয়ান সফর এখনও নিশ্চিত নয়। তবে তিনি যদি সেখানে যান তাহলে মা’র্কিন সে’নাবাহিনী ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে তাঁদের কার্যক্রম বাড়াবে। বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানালেও তারা বলেছে, যু’দ্ধবিমান, জাহাজ ও নজরদারি সরঞ্জামসহ সাম’রিক ব্যবস্থার সব উপকরণই তার নিরাপত্তায় ব্যবহার করা হবে।

Back to top button