জাতীয়

প্রতিবেশীর ছাগল জবাই করে মাংস ফ্রিজে রাখায় গ্রে’প্তা’র আ.লীগ নেতা

এবার পটুয়াখালীর দুমকিতে ছাগল জবাই করার অ’ভিযোগে মো. রেজাউল করিম রাজন (৫০)নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রে’প্তা’র করেছে পু’লিশ। গতকাল বুধবার ২৭ জুলাই দিবাগত রাতে তাকে গ্রে’প্তা’র করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আ’দা’লতে পাঠানো হয়েছে। মো. রেজাউল করিম রাজন দুমকি উপজে’লার আংগারিয়া গ্রামের মৃ’ত নুরুল হক হাওলাদারের ছে’লে। তিনি দুমকি উপজে’লা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন।

জানা গেছে, আবু গাজী তার বসতবাড়ির পশ্চিম পাশে দুই বছর আগে মাটি দিয়ে ভরাট করে বাঁধ দেয়। বুধবার সকালে উপজে’লা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম ওই বাঁধ কাটতে যায়। এ সময় আবু গাজী বাধা দিলে রাজনের সঙ্গে কথা কা’টাকাটি হয়। রাজন তার হাতে থাকা দা দিয়ে খু’ন করার হু’মকি দিয়ে চলে যায়।

এদিকে বিকেলে আবু গাজীর গৃহপালিত একটি ছাগল রাজনের বাড়িতে গেলে পূর্ব শত্রুতার জেরে তিনি ছাগলটি জবাই করেন। ছাগল জবাইয়ের কারণ জানতে চাইলে তাকে খু’ন করার হু’মকি দেন এবং নানা রকম ভ’য়-ভীতি দেখায়। এ ঘটনায় বুধবার রাতে ছাগল চু’রির অ’ভিযোগে আবু গাজী বাদী হয়ে রাজনের বি’রু’দ্ধে থা’নায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ করেন।

আবু গাজী বলেন, আমি আমা’র নিজ জমিতে দুই বছর আগে মাটি দিয়ে ভরাট করে জমির পাশে বাঁধ দেই। বুধবার রাজন আমা’র জমিতে দেওয়া বাঁধ কাটতে যায়। আমি বাধা দিলে রাজনের সঙ্গে কথা কা’টাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রাজন তার হাতে থাকা দা দিয়ে খু’ন করার হু’মকি দিয়ে চলে যায়। বুধবার বিকেলে আমা’র একটি ছাগল রাজনের বাড়িতে গেলে সে জবাই করে। ছাগলটির দাম ১২ হাজার টাকা। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

এ বিষয়ে দুমকি থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) মো. আব্দুস সালাম বলেন, অ’ভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার রাত ১১টার দিকে দুমকি থা’না পু’লিশ অ’ভিযান চালিয়ে রেজাউল করিম রাজনকে আ’ট’ক করে। একইসঙ্গে জবাই করা ছাগলের মাংস ফ্রিজ থেকে জ’ব্দ করা হয়েছে। আজ সকালে তাকে আ’দা’লতে পাঠানো হয়েছে।

 

Back to top button