জাতীয়

মে’য়ের শাবলের আ’ঘাতে মায়ের মৃ’ত্যু

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় মে’য়ের শাবলের আ’ঘাতে মায়ের খু’ন হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মেয়ের শাবলের আ’ঘাতে মা খোদেজা বেগম (৬০) মা’রা যাওয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মুক্তাগাছা থা’নার পু’লিশ পরিদর্শক (ত’দ’ন্ত) মো. চাঁদ মিয়া।

উপজে’লার কাশিমপুর গ্রামে বুধবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটে। নি’হ’ত খোদেজা ওই গ্রামের আব্দুল খালেকের স্ত্রী’। এ ঘটনায় মে’য়ে নাজমা আক্তারকে আ’ট’ক করেছে পু’লিশ।

পু’লিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, আব্দুল খালেকের ৪ মে’য়ের মধ্যে বড় মে’য়ে মা’রা গেছেন বছরখানেক আগে। তিন নম্বর মে’য়ে নাজমা আক্তার বিয়ে করে বাবার বাড়ির পাশেই বসবাস করতেন। অনেক দিন ধরে নাজমা বাবা-মায়ের কাছে অ’তিরিক্ত জমি দাবি করে আসছিল। জমির জন্য প্রায়ই বাবা-মাকে মা’রধর করতেন নাজমা ও তার স্বামী।

নি’হ’তের স্বামী আব্দুল খালেক যুগান্তরকে বলেন, ভাঙা হাতের চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে যান। বাড়ি ফিরে দেখেন ঘরে খোদেজা পড়ে আছে।

খালেক অ’ভিযোগ করে আরও বলেন, আমি বাড়ি না থাকার সুযোগে মে’য়ে নাজমা আক্তার, জামাতা মিজানুর রহমান ও নাতি নয়ন মিয়া মিলে শাবল দিয়ে আ’ঘাত করে খোদেজাকে হ’ত্যা করেছে।

এ প্রসঙ্গে মুক্তাগাছা থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা মাহমুদুল হাসান জানান, ধারণা করা হচ্ছে লোহা জাতীয় ভা’রি কিছু দিয়ে মা’থায় আ’ঘাত করে তাকে হ’ত্যা করা হয়েছে। মা’থায় আ’ঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনায় জ’ড়ি’ত থাকার স’ন্দেহ মে’য়ে নাজমা আক্তারকে আ’ট’ক করে আ’দা’লতে পাঠানো হয়েছে।

Back to top button