জাতীয়

ছে’লের অ’ত্যাচারে বাড়িছাড়া বৃদ্ধ মা-বাবা

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজে’লার রোয়াইলবাড়ি আমতলা ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের মা’দ’কাসক্ত এক সন্তানের অ’ত্যাচার ও নি’র্যা’তনের কারণে গত ১২ দিন ধরে বাড়িছাড়া অবস্থায় দিনযাপন করছেন বৃদ্ধ মা-বাবা।

এদিকে বৃহস্পতিবার ওই বৃদ্ধ মা-বাবা বাড়িতে গেলে মা’দ’কাসক্ত ওই সন্তান তাদের মা’রধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।এ অবস্থায় নি’র্যা’তনের শিকার বাবা আব্দুল করিম (৭৫) জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে মা’দ’কাসক্ত ছে’লে হামিদুলের (২৮) অ’ত্যাচার নি’র্যা’তন থেকে বাঁচতে বৃহস্পতিবার কেন্দুয়া থা’নায় লিখিত অ’ভিযোগ করেছেন।

মা’দ’কের জন্য বাবার কাছে টাকা চেয়ে না পাওয়ায় হামিদুল বৃদ্ধ বাবা ও মাকে চড়-থাপ্পড়সহ বাড়িঘরে ব্যাপক ভাংচুর করে বলে লিখিত অ’ভিযোগে উল্লেখ করেন আব্দুল করিম।বাবা আব্দুল করিম জানান, হামিদুল ম’দ, গাঁজা ও ইয়াবা সেবনকারী। সে মা’দ’কাসক্ত হয়ে স’ন্ত্রা’সী কর্মকা’ণ্ড করে বেড়ায়। তার মা’রধরসহ নি’র্যা’তনের কারণে বৃদ্ধ স্ত্রী’ রিনা আক্তারকে (৬০) নিয়ে গত ১২ দিন ধরে নিজের বাড়িতে থাকতে পারছি না।

তিনি আরও বলেন, নে’শার টাকা না পেলেই সে আমাদের প্রচণ্ড মা’রধর করে। তার ভ’য়ে আম’রা অন্যদের বাড়িতে বসবাস করে আসছি। বৃহস্পতিবার বাড়িতে গেলে টাকার জন্য আমাদের মা’রধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তাই ইউএনও এবং ওসি স্যারের কাছে লিখিত অ’ভিযোগ করেছি; যাতে হামিদুলের বি’রু’দ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেন।

মা রিনা আক্তার বলেন, হামিদুল তার বাবার চেয়ে আমাকে বেশি মা’রধর করে। আমাদের ৩ ছে’লের মধ্যে বড় ছে’লে শফিকুল পঙ্গু। মেজো ছে’লে রফিকুল কাজ করে তার সংসার চালায়। ছোট ছে’লে হামিদুলের স্ত্রী’- সন্তান আছে। কয়েক বছর ধরে হামিদুল মা’দ’কাসক্ত হয়ে আমাদের ওপর নি’র্যা’তন চালাচ্ছে। আম’রা অ’তিষ্ঠ হয়ে অ’ভিযোগ করেছি।

এ ব্যাপারে রোয়াইলবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান আকন্দ বলেন, আব্দুল করিমের অ’ভিযোগ সত্য। হামিদুল নে’শা করে। সে তার স্ত্রী’কেও মা’রধর করার অ’ভিযোগ রয়েছে।কেন্দুয়া থা’না পু’লিশের ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) মো. আলী হোসেন বলেন, পেমই ত’দ’ন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) সুমনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা (ইউএনও) মাহমুদা বেগম বলেন, বিষয়টি আমিও খোঁজ নিয়ে দেখব। তাদের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে।

Back to top button